শ্রীলঙ্কা হামলায় যে দুই ‘ইসলামী চরমপন্থী’কে খুঁজছে পুলিশ

রক্তাক্ত শ্রীলঙ্কায় আবারও বিস্ফোরণ, বাড়ছে মৃত‌্যুর মিছিল

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোসহ দেশটির আটটি স্থানে বোমা হামলায় অন্তত ২০৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন পাঁচ শতাধিক মানুষ। শ্রীলঙ্কান ডেইলি মিররের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, পুলিশ এ ঘটনায় যে দুজনকে সন্দেহ করছে তারা ইসলাম ধর্মালম্বী চরমপন্থী।

ডেইলি মিররের প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, রোববার সকালে যে ছয়টি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে তা ছিল আত্মঘাতী বোমা হামলা। পরে দুপুরের দিকে আরও দুটি স্থানে বোমা হামলা হয়েছে।

সকালে যে তিনটি হোটেলে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে তার মধ্যে একটি হলো হোটেল সাংরি-লা। প্রাথমিক তদন্ত থেকে জানা গেছে, ২০ এপ্রিল ওই হোটেলের ৬১৬ নাম্বার কক্ষে যে দুজন ছিলেন তারা ইসলামী চরমপন্থার সঙ্গে যুক্ত।

হোটেলের একটি সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে ৬১৬ নাম্বার কক্ষে থাকা সন্দেহভাজন ওই দুই ব্যক্তি হোটেলের ক্যাফেটেরিয়া ও করিডরে বোমা বিস্ফোরণ ঘটনা। এরপর আর তাদের হোটেলে দেখা যায়নি।

তদন্তকারীরা সন্দেহ করছেন, সন্দেহভাজন ওই দুই ব্যক্তি ২৫ কেজি ওজনের সি-৪ ধরনের বিস্ফোরকের মাধ্যমে সাংরি-লা হোটেলে আত্মঘাতী বোমা হামলা করেন।

সূত্রের বরাত দিয়ে ডেইলি মিরর বলছে, অভিযুক্ত দুই হামলাকারী হোটেলেরে যে কক্ষটিতে ছিলেন সেটি ভাঙার পর তদন্তকর্মকর্তারা সেখানে ইসলামী চরমপন্থীদের ব্যবহৃত কিছু উপাদান খুঁজে পেয়েছেন।

তবে এটা এখনো অস্পষ্ট যে বোমা হামলাকারীরা স্থানীয় নাকি ভ্রমণ ভিসা নিয়ে বিদেশি পর্যটক হিসেবে দেশটিতে অবস্থান করছিলেন। বিষয়টি নিয়ে আরও তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে মিরর।