সেন্টমার্টিনে পাঁচ ট্রলারডুবি, ট্রলারসহ ১৪ মাঝিমাল্লার খোঁজ নেই

সেন্টমার্টিনে পাঁচ ট্রলারডুবি, ট্রলারসহ ১৪ মাঝিমাল্লার খোঁজ নেই

নুরুল হক
নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকনাফ
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

সেন্টমার্টিনের অদূরে বঙ্গোপসাগরে মাছধরার ট্রলারডুবির ঘটনায় অন্তত ১৪ জন মাঝিমাল্লা নিখোঁজ রয়েছেন।

বুধবার (১০ এপ্রিল) ভোররাতে হঠাৎ করে কালবৈশাখী ঝড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে পাঁচটি ট্রলারডুবির ঘটনায় ১৮ জন মাঝিমাল্লাকে উদ্ধার করা হলেও ১৪ জন মাঝিমাল্লা নিখোঁজ রয়েছেন দাবি করেছেন ট্রলার মালিকরা।

ট্রলার মালিকরা জানান, উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপ দক্ষিণপাড়ার বদিউল আলম, কবির আহমদ, ঘোলা পাড়ার জহির আহমদ, মিস্ত্রিপাড়ার মোহাম্মদ জোবাইর ও বদি আলমের মালিকানাধীন ট্রলারসহ একাধিক ট্রলার সাগরে মাছ ধরতে যায়। ট্রলারগুলো নোঙ্গর করে জাল ফেলে মাছ শিকারকালে হঠাৎ কালবৈশাখি ঝড়ে উত্তাল ঢেউয়ের কবলে পড়ে পাঁচটি ট্রলার ডুবে যায়। ওই সময় আশেপাশে থাকা মো. ইসমাঈল ও মো. আমিনের মালিকানাধীন ট্রলার ১৮ জন জেলেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করলেও মো. রশিদ, মো. ইব্রাহিম, আবুল হোসেন, মতিউর রহমান, শাহ আলম ও আবদুল্লাহ নিখোঁজ রয়েছেন। এছাড়াও শাহপরীর দ্বীপ দক্ষিণপাড়ার মো. আব্দুল্লাহর মালিকাধীন ট্রলারসহ ৮ জন মাঝিমাল্লা নিখোঁজ আছেন।

উদ্ধার হওয়া ট্রলারের মাঝি মো. ইলিয়াছ জানান, জাল ফেলে মাছ ধরার সময় হঠাৎ করে ঝড়ো হাওয়ায় ট্রলারটি ঢেউয়ের কবলে পড়ে ডুবে যায়। পরে তারা কয়জন পাশ্ববর্তী ট্রলারের সহযোগিতায় উঠে আসতে পারলেও তিনটি ট্রলারের ছয়জন নিখোঁজ রয়েছেন।

সাবরাং ইউপি সদস্য নুরুল আমিন বলেন, এ পযর্ন্ত ১৪ জন জেলে নিখোঁজ রয়েছে। তবে আবদুল্লাহর মালিকানাধীন ট্রলারের মাঝিমাল্লাদের নাম-ঠিকানা এখনো নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হয়নি।

কোস্টগার্ড সেন্টমার্টিন ষ্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট ফয়েজুল ইসলাম মন্ডল বলেন, সাগরে মাছ ধরার সময় ট্রলারডুবির বিষযটি শুনেছি। তবে মালিকপক্ষের কাছ থেকে এ পর্যন্ত কেউ কোনো কিছুই জানায়নি । এরপরও বিয়ষটি নিয়ে খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।