মক্কার ময়দান থেকে আল্লাহর দরবারে ফিরলেন ড. জসিম নদভী

জামিয়া দারুল মাআরিফ আল ইসলামিয়া চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক, মহেশখালীর মাতারবাড়ীর বাসিন্দা ড. মাওলানা জসিম উদ্দীন নদভী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

তিনি স্বপরিবারে সৌদি আরবের পবিত্র মক্কায় ওমরায় ছিলেন। ওমরাহ পালন অবস্থায় হঠাৎ অসুস্থতা অনুভব করলে সৌদির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৮ এপ্রিল দিবাগত রাত ৩টার দিকে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫১ বছর। সাংসারিক জীবনে মরহুম নদভীর স্ত্রী, ২ মেয়ে ও ১ ছেলে ছিল। বড় মেয়ে জামাতাসহ সৌদি আরবে থাকেন।

ড. মাওলানা জসিম উদ্দীন নদভী জামিয়া দারুল মাআরিফ আল ইসলামিয়া চট্টগ্রামের পরিচালক (অধ্যক্ষ) উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ইসলামিক স্কলার আল্লামা সোলতান আহমদ যওক নদভীর জামাতা। তিনি জাতীয় উলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে হাতপাখা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ড. মাওলানা জসিম উদ্দিন নদভী মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী রাজঘাট এলাকার মতো একটি অঁজপাড়া থেকে গিয়ে মদিনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯৭ সালে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রী নেন।

এর আগে ১৯৯০ সালে ভারতের বিখ্যাত বিদ্যাপীঠ দারুল উলুম নদওয়াতুল উলামা লক্ষ্ণৌ থেকে দুইবছর মেয়াদি আরবী ভাষা সাহিত্যে ডিপ্লোমা এবং ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কুষ্টিয়া থেকে ২০০৮ সালে আল কুরআন এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ হতে এমফিল ডিগ্রি অর্জন করেন।

লেখক, গবেষক ড. জসীম আরবি সাহিত্যের শিক্ষক ও আন্তর্জাতিক ইসলামি সাহিত্য সংস্থা থেকে প্রকাশিত মাসিক আল-হকের সহ-সম্পাদক ছিলেন।

শোক
ড. মাওলানা জসিম উদ্দিন নদভীর ইন্তেকালে শোক প্রকাশ করেছেন কক্সবাজার দারুল আরক্বম তাহফিজুল কুরআন মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক শায়েখ হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ ইউনুছ ফরাজী।

তিনি বলেন, প্রাজ্ঞ এই আলেমের মৃত্যুতে দেশবাসীর অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোকাহত স্বজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন ফরাজী।সিবিএন।