চলন্ত বাসে স্কুলছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে চলন্ত বাসে এক শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে বাসের কন্ডাক্টরসহ তিনজনকে উত্তম-মধ্যম দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করেছেন এলাকাবাসী। সোমবার (৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় রজনীগন্ধা বাসে এ ঘটনা ঘটে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীন পারভেজ বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকার দশম শ্রেণির এক ছাত্রী সন্ধ্যার দিকে প্রাইভেট পড়া শেষে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সানারপাড় মৌচাক থেকে শিমরাইল মোড়ে যাওয়ার জন্য রজনীগন্ধা পরিবহনের (ঢাকা-মেট্রো-ব-১৫-১৮৪৯) বাসে ওঠে। বাসটি মহাসড়কের শিমরাইল এলাকায় আসার আগেই রাস্তায় যানজটের কারণে অন্য যাত্রীরা নেমে যায়। তখন বাসটিতে একা ছিল ওই স্কুলছাত্রী। মেয়েটি শিমরাইল মোড়ের ফুটওভারব্রিজে নামিয়ে দেওয়ার জন্য হেলপারকে বলে। এ সময় বাসের কন্ডাক্টর সোলেমান (২২) ওই শিক্ষার্থীকে জাপটে ধরে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয় এবং ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। তখন ওই শিক্ষার্থী চিৎকার করতে গেলে সোলেমান তার গলা টিপে ধরে। এরপর চালক বাসটি নির্জন স্থান কাঁচপুর সেতুর নিচে নিয়ে গেলে মেয়ের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন বাসের কন্ডাক্টর সোলেমান, চালক হাবিবুর রহমান (৪২) ও হেলপার জয়কে (২৩) গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ বাসটি আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

ওসি শাহীন পারভেজ জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। গণধোলাইর শিকার তিনজনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।