ব্যালট পেপারে সিল মেরে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি!

ব্যালট পেপারে সিল মেরে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি!

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি সমর্থক ভোটাররা কেন্দ্রে গেলেও কোনো প্রতীকে সিল মারেননি। এ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ না করলেও রোববার ভোট দিতে যান দলের সমর্থকরা। তবে তারা কোনো প্রতীকে সিল না মেরে ব্যালট পেপারে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ ও ‘আমার মা জেলে কেন শেখ হাসিনা জবাব চাই’ লেখা সম্বলিত সিল মেরেছেন। সেই ব্যালট তারা কৌশলে বাক্সে না ফেলে বাইরে নিয়ে আসেন। এরপর ব্যালটের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছেন কেউ কেউ।

এনিয়ে উপজেলায় ব্যাপক আলোচনা চলছে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন, আলোচনায় আসতে বিএনপি নেতাকর্মীরা পরিকল্পিতভাবে বিভিন্ন কেন্দ্রে এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন।

জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নিবাচন চলাকালে তার ফেসবুকে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ ও ‘আমার মা জেলে কেন শেখ হাসিনা জবাব চাই’ লেখা ব্যালট পেপারের ছবি পোস্ট করেন। তিনি সেখানে লেখেন- ‘নিরব প্রতিবাদ সোনারগাঁ উপজেলা’।

এ বিষয়ে কথা বলতে রুহুল আমিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

অপরদিকে ব্যালট পেপারে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ সিল সম্বলিত আরকটি ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এতে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখার নিচে সোনারগাঁ থানা ছাত্রদল লেখা রয়েছে। এসব ব্যালট পেপারের ছবি বিএনপি ও ছাত্রদলের অনেক নেতাকর্মী ফেসবুকে পোস্ট করছেন।

এ বিষয়ে সোনারগাঁ থানা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর বলেন, উপজেলা নির্বাচনে ভোট না দিয়ে কে বা কারা ব্যালট পেপারে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সিল মেরেছে বলে শুনেছি। কেউ যদি এটা করে থাকে তাহলে অবশ্যই ক্ষোভে নীরব প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন বলেন, এ ধরনের ঘটনা আমার জানা নেই। যদি এমন ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারেন।