জলিল আর বাবুলের মানুষ গণনার গল্প

হনুলুলু থেকে আসা এনজিওকর্মী জলিল বাড়ি বাড়ি ঘুরে মানুষদের নাম লেখেন- কার বাচ্চা ক’জন। বুড়ো-বুড়ি আছে কি না, আরও কতো কী!
জলিলের সাথে অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসাবে আছেন বাবুল। সাড়ে চার ফুট সাইজের বাবুল কোট-টাই পরে থাকে সবসময়! মাঝে মাঝে ইংরেজিতেও দু’চার লাইন কথা বলার চেষ্টা করে।
পূবাইলের পথে বাবুল আর জলিল, শুটিংয়ের ফাঁকেজলিল আর বাবুলের থাকার জায়গা হয় গ্রামের চেয়ারম্যান সাহেবের বাড়ি।
এই একটি চিত্রকল্পের মাধ্যমে ভেসে ওঠে গ্রাম বাংলার আদমশুমারির বড় অংশ। আর সেই গল্পটিকেই এবার পর্দায় তুলে আনছেন নাট্যকার-নির্মাতা হিমু আকরাম।
টেলিছবিটির নাম ‘জলিলের আদমশুমারি’।
ঢাকার অদূরে পূবাইলের বিভিন্ন স্থানে আজ, ২৪ মার্চ থেকে শুটিং শুরু হয়েছে। যাতে জলিল চরিত্রে অভিনয় করছেন ইরফান সাজ্জাদ আর বাবুল চরিত্রে হুমায়ূন সাধু। বিভিন্ন চরিত্রে আরও আছেন প্রিয়া আমান, পায়েল, মাসুদ রানা মিঠু, কাজী উজ্জ্বল, শরিফুল প্রমুখ।
গল্পটি প্রসঙ্গে ইরফান সাজ্জাদ বলেন, ‘এখানে আমি জলিল চরিত্রে অভিনয় করেছি। বিদেশী এনজিও থেকে আসা। আমার অ্যাসিস্ট্যান্ট হুমায়ূন সাধু। গ্রামের বাড়ি বাড়ি আদমশুমারি করা, চেয়ারম্যানের মেয়ের সাথে প্রেম, বাবুলের সাথে ঝগড়া- সব মিলিয়ে চরিত্রটি বেশ মজার। যদিও এই টেলিছবির শেষ দিকে দর্শকরা অন্য একটি গল্প পাবেন। যেটা এভাবে ভাবেননি কখনও।’
এদিকে নির্মাতা-নাট্যকার হিমু আকরাম বলেন, ‘এক কথায় আমাদের ফেলে আসা জীবনের গল্প এটি। ছোট বেলায় বাড়িতে বাড়িতে মানুষ গণনা করতে আসতো এনজিও’র লোক। সেই গল্পের প্লট নিয়েই এই টেলিছবি। তবে গল্পের শেষটা অন্যরকম হবে।’
নির্মাতা জানান, ‘জলিলের আদমশুমারি’ প্রচার হবে চ্যানেল আইতে।