উখিয়ায় সাড়ে ৩ ঘন্টায় দুইটি বুথে ভোট পড়েনি একটিও!

উখিয়ায় সাড়ে ৩ ঘন্টায় দুইটি বুথে ভোট পড়েনি একটিও!

কক্সবাজারের কাছের উপজেলা উখিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উখিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র উখিয়া শহরের প্রাণকেন্দ্রেই অবস্থিত। নানা কারণেই পুরো উপজেলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এই ভোটকেন্দ্রটি। কিন্তু উপজেলা ভোটের এমন কেন্দ্রেও সাড়া ফেলতে পারেনি। যার কারণে সকাল সাড়ে ১১টায় ভোটের সাড়ে ৩ ঘণ্টা পরও এই কেন্দ্রের দুটি বুথে একটি ভোটও পড়েনি।

উখিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সরওয়ার আলমের শাহীনের পর্যবেক্ষণে এমনটি উঠে এসেছে। এই তথ‌্য জানিয়ে তিনি তার ফেসবুকে স্ট্যাটাসও দিয়েছেন।

সরওয়ার আলম শাহীনের মতে, সকাল ১১টা ৩০ মিনিটেও উৎসবের ভোটে উখিয়ায় ওই কেন্দ্রের বিরাজ করছিল শুনশান নীরবতা। বাইরে কোন লাইন নেই, বিদ্যালয়ের বাইরে গাছতলায় দায়িত্বরত দুইজন পুলিশ অলস বসে আছেন। ভেতরে না গেলে বুঝার উপায় নেই এখানে আজ ভোট।

উখিয়ায় সাড়ে ৩ ঘন্টায় দুইটি বুথে ভোট পড়েনি একটিও!

৩৮নং কেন্দ্রের ৪নং বুথে দায়িত্বে রয়েছেন উখিয়ার পোষ্টমাষ্টার জসিম উদ্দীন। তিনি এই কেন্দ্রের সহকারি প্রিজাইডিং কর্মকর্তা। তিনি আক্ষেপ করে বললেন, জীবনে এমন ভোট দেখিনি, আমার ৪নং বুথে সকাল ৮টা থেকে বেলা ১১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ৪৪৯ ভোটের মধ্যে একটি ভোটও পড়েনি।

একই অবস্থা ওই কেন্দ্রের দুতলার ৫নং বুথে। এখানের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা রত্নাপালং হাই স্কুলের শিক্ষক মনসুর। বুথে তিনিসহ ৩ জন বসে আসেন ভোটারের অপেক্ষায়। বাইরে প্রচণ্ড রোদ, কিন্ত ভেতরে তাদের চোখেমুখে কালো মেঘের ছায়া। তাদের মন খারাপের একটিই কারণ, তাদের বুথে ৪০২টি ভোটের মধ্যে একটি ভোটও পড়েনি।

তার মতে, এ যেন উখিয়ার জন্য একটি ইতিহাস। সেই ইতিহাসের অংশ হলাম আমরা।

প্রসঙ্গত, আজ রোববার (২৪ মার্চ) কক্সবাজারের পাঁচটি উপজেলা মহেশখালী, পেকুয়া, রামু, উখিয়া ও টেকনাফে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উখিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে শুধুমাত্র ভাইস চেয়ারম‌্যান পদে ভোটগ্রহণ চলছে। এখানে চেয়ারম‌্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হামিদুল হক চৌধুরী ও মহিলা ভাইস চেয়ারম‌্যান পদেও নির্বাচিত প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।