চকরিয়ায় বসতবাড়ি থেকে আটক ১২ রোহিঙ্গা

চকরিয়ায় বসতবাড়ি থেকে আটক ১২ রোহিঙ্গা

কক্সবাজারের বৃহত্তর উপজেলা চকরিয়ার খুটাখালী এলাকার একটি বসতবাড়ি থেকে ১২ জন রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ।

তারা হলো উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্পের এ ব্লকের আবদুর রহমানের ছেলে ছৈয়দ আমিন (৩০), আবদুল গণির ছেলে মো. হোসেন (২৫), তার ভাই মো. সাদেক (১৯), হারুন সালামের ছেলে রাহমত উল্লাহ (২৫), মোহাম্মদ মুছার ছেলে জোবায়ের (২৩), ফয়েজ আহমদের ছেলে আবদুর রব (২৫), নুর মোহাম্মদের ছেলে আলী আহমদ (২১), আবু ছৈয়দের ছেলে নুর সালাম (২০), ফয়জুর ইসলামের ছেলে সাদেক হোসেন (১৯), মোহাম্মদ ছৈয়দের ছেলে ইয়াদুল ইসলাম (১৯), আবদুল মালেকের ছেলে জোবায়ের (৩০) ও জামতলী ক্যাম্পে থাকা আবদুল গণির ছেলে নুর হোসেন (১৯)।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) রাতে উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ২ নাম্বার ওয়ার্ডের মেধাকচ্ছপিয়া এলাকা থেকে তাদের আটক করে পুলিশ। পরে চকরিয়া থানা পুলিশ তাদের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠায় বলে নিশ্চিত করেছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মেদাকচ্ছপিয়া এলাকার ওমর আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেনের বাড়িতে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালিয়ে রোহিঙ্গারা আশ্রয় নেন। সংবাদ পেয়ে কক্সবাজার মহাসড়কে ডিউটিরত থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুকান্ত চৌধুরীর নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে তাদের আটক করে।

এসময় ওমর আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেনকে (৩৫) আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বাড়ির মালিকের দাবি, রোহিঙ্গারা রাজমিস্ত্রী কাজ করতে আসছিল।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আটক ওই রোহিঙ্গারা উখিয়া শরণার্থী ক্যাম্প থেকে পালিয়ে এসেছে। তাঁদের বাড়ি মিয়ানমারের আকিয়াব ও বুচিডং এলাকায়। বুধবার বিকেলে ধৃত রোহিঙ্গাদের উখিয়া রোহিঙ্গা শরণার্থী পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জের কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।