টানা ছুটি, তাই পর্যটকের ঢেউ লেগেছে সৈকতে

টানা ছুটি, তাই পর্যটকের ঢেউ লেগেছে সৈকতে

প্রচন্ড গরমও বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি ভ্রমণপিসাপুদের আনন্দে। পর্যটনের ভরা মৌসুম শেষ হলেও পর্যটক আগমন অব্যাহত থাকায় দারুণ খুশি ব্যবসায়ীরা। তবে সাগর উত্তাল থাকায় পর্যটকদের সমুদ্রস্নানে বারবার সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বীচ কর্মীরা।

উত্তাল সাগর, উত্তাল মানুষও। টানা ছুটিতে সৈকতে পর্যটকের উপচেপড়া ভিড়। আনন্দ আর উচ্ছাসে মাতোয়ারা পুরো সাগর তীর। প্রচন্ড রোদও হার মানাতে পারছে না এসকল পর্যটকদের, যেন সাগর তীরই তাদের কাছে সবকিছু।

পর্যটকরা বলেন, শুক্র-শনি-রবি ছুটি, তাই মানুষ এসেছে প্রচুর। আমাদের সমুদ্র সৈকত এতই যে সুন্দর, সে কারণে অনেক কষ্ট করে আমরা এতদূর থেকে ঘুরতে আসি।

শীত শেষ হলেও ভরা মৌসুম টানা ছুটিতে কক্সবাজারের পর্যটকদের ভিড় বেড়েছে। বিভিন্ন পয়েন্টে ঘুরাঘুরি করে বেশ মজা পাচ্ছেন ভ্রমণপিসাসুরা। তাই দারুণ খুশি সৈকত এলাকার ব্যবসায়ীরা।

ব‌্যবসায়ীরা সাংবাদিকদের বলেন, আমরা মনে করিনি এত লোক আসবে। আল্লাহর রহমতে অনেক লোক আসছে, তাতে আমাদের ভালো ব্যবসা হচ্ছে।

টানা ছুটি, তাই পর্যটকের ঢেউ লেগেছে সৈকতে

শীত মৌসুম শেষে সাগর উত্তাল থাকায় পর্যটকদের সবসময় সমুদ্রস্নানে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন কক্সবাজারের লাইফগার্ড কর্মীরা। তারা জানান, ‘যেখানে লাইফগার্ড থাকে না সেখানে বিপদগুলো হতে থাকে। যেখানে লাইফগার্ড সার্ভিস দিচ্ছে সেখানে সাঁতার কাটা নিরাপদ।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঘুরতে আসা হাবীব খান জানান, ইনানী বীচের মনোরম পরিবেশ দেখে খুব ভালই লেগেছে। এখানে এসে সূর্যাস্তের মনোরম দৃশ্য উপভোগ করলাম। পাথরের ওপর ছোটাছুটির স্মৃতি ক্যামেরাবন্দি করা। স্মৃতির পাতায় আজীবন অক্ষত থাকবে ইনানী ভ্রমণ।

ইনানী বীচের আবাসিক হোটেল মালিকরা বলেন, ইনানী বীচ বাংলাদেশের পর্যটননীতি প্রণয়ন করে টুরিস্টদের ভিড় উপকণ্ঠে সরিয়ে দিতে হবে। ইনানী বীচ এলাকায় অন্যান্য আকর্ষণ সৃষ্টি করতে হবে।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!