কক্সবাজার উপজেলা নির্বাচন

প্রার্থিতা ফিরে পেলেন আবদুর রহমান

প্রার্থিতা ফিরে পেলেন আবদুর রহমান

আগামি ৩১ মার্চ অনুষ্টিতব্য কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহমান।

বিপ্লব দাশ নামের এক ব্যক্তির ব্যাংক ঋণের জামিনদার হিসেবে তাকেও ঋণখেলাপি দেখিয়ে আবদুর রহমানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছিল।

সদর উপজেলা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসকের কাছে আপিল করার পর সোমবার (১১ মার্চ) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন তার মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

আবদুর রহমান কক্সবাজার শহরের একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সংবাদকর্মী। তিনি সাতকানিয়া-লোহাগড়া সমিতির সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি জানান, কক্সবাজার শহরের বাজারঘাটা এলাকার বিপ্লব দাশ নামের এক ব্যবসায়ীর ব্যাংক ঋণে ২০০৯ সালে তিনি জামিনদার হয়েছিলেন। ওই ব্যবসায়ী তার ঋণের টাকা পরিশোধ করে হিসাবটি নিয়মিতকরণ করেছেন। সেই কাগজপত্র উপস্থাপনের পর ৬ মার্চ মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিনে রিটার্নিং কর্মকর্তা তার মনোনয়নপত্রটি বাতিল করেন।

এদিকে ওই অভিযোগে মনোনয়নপত্র বাতিলের পর ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রহমান আপিলের পাশাপাশি ‘ব্যক্তিগত কৈফিয়ত’ শিরোনামে একটি বক্তব্যও সংবাদমাধ্যমে পাঠিয়েছিলেন। সেই বক্তব্যটি কক্সবাজার ভিশন ডটকম পাঠকের জন্য হুবুহু তুলে ধরা হলো।

‘সম্মানিত সদর উপজেলার আপমর জনসাধারণ, সকলের প্রতি সালাম, আদাব ও ছোটদের ভালবাসা জানাচ্ছি। আমি সদর উপজেলার ভোটার। ছোটবেলা থেকে সামাজিক, ব্যবসায়ীক, সেবা ও উন্নয়নমূলক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছি। আপনাদের স্নেহ ও মমতাময় ভালবাসায় সফলতার দ্বারপ্রান্তে আসতে পেরেছি। যার ধারাবাহিকতায় আপনাদের সেবা করার উদ্দেশ্যে আসন্ন সদর উপজেলা নির্বাচনে আমি ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছি।

গত ৬ মার্চ বুধবার ছিল মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই। আল্লাহর রহমতে সবকিছু সঠিক ভাবে হয়েছে। কিন্তু সামান্য কারণে আমার মনোনয়নের বৈধতা আটকে যায়। যেহেতু মানুষের বিভিন্ন কাজে সহযোগিতা করি, তার অংশ হিসাবে ২০০৯ সালে বাজারঘাটাস্থ বড় বাজার বিপ্লব দাশের জন্য একটি ব্যাংকে আমি জামিনদার হই। সেই কারণ দেখিয়ে আমাকে ঋণ খেলাপী করা হয়। এ জন্য আজ আমি অপরাধী। সবাই জানে ঋণ খেলাপীর কারণে আমার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। আসল সত্য হলো যে অপরের উপকারে আমি দোষী।

তিনি ব্যাংকে এই ঋণ পরিশোধ করেছেন অনেক আগে। তাই আমার মনোনয়ন বৈধতায় আর কোন সমস্যা নেই। আল্লাহর রহমতে শীঘ্রই ইনশাল্লাহ আমি মনোনয়ন বৈধতা পাবো। এই বিষয় নিয়ে আমার শুভাকাঙ্খী, সহকর্মী ও সমর্থকদের হতাশ না হওয়ার জন্য সবিনয় অনুরোধ করছি। পাশাপাশি আপনাদের দোয়া ও ভালবাসায় আসন্ন সদর উপজেলা নির্বাচনে আছি এবং থাকব ইনশাল্লাহ। এ জন্য সবার কাছে দোয়া কামনা করছি।’

এদিকে আবদুর রহমান তার মনোনয়নপত্রের বৈধতা ফিরে পাওয়ায় মহান আল্লাহর শুকরিয়া এবং কক্সবাজার সদর উপজেলাবাসিসহ সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। একই সাথে তিনি সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেছেন।