বুধবার বাছাই, একক প্রার্থিতা নিয়ে কৌতুহল

সদরে আ.লীগের ‘স্বতন্ত্র’ প্রার্থীদের কেন্দ্রে তলব

কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনটি পদে মনোনয়ন দাখিলকারী ২২টি মনোনয়নপত্র বাছাই বুধবার ৬ মার্চ কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে।

সদর উপজেলা নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা বিষয়টি এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।

এই বাছাই প্রক্রিয়ায় কার মনোনয়নপত্র বৈধ হচ্ছে আর কার মনোনয়নপত্র বাতিল হচ্ছে- এনিয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলার ভোটারদের কৌতুহল ও জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। সবার দৃষ্টি বাছাইয়ের ফলাফলের দিকে। কারণ কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচনের পরপর দু’বার তফশীল ঘোষণা করা হয়েছে।

প্রথম তফশীলে চেয়ারম্যান পদে শুধুমাত্র দু’জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করলেও দ্বিতীয়বারের তফশীলে চেয়ারম্যান পদে আরও ৭ জন হেভিওয়েট প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। সর্বমোট ৯ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ৭ জনই আওয়ামী লীগের সক্রিয় নেতা।

আওয়ামী লীগ মনোনীত কায়সারুল হক জুয়েল ও জাতীয় পার্টি মনোনীত অধ্যাপক আতিকুর রহমানসহ শুধুমাত্র দুইজনই রাজনৈতিক দলের মনোনীত প্রার্থী।

চেয়ারম্যান পদে অবশিষ্ট ৭ জনই স্বতন্ত্র প্রার্থী। তাই সদর উপজেলা নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত কি হচ্ছে- এটা এখন সদর উপজেলার ভোটারদের মুখে মুখে।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, চেয়ারম্যান পদে ৯ জনসহ ৩টি পদে মোট ২২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

২৭ মার্চ পূণঃতফশীল ঘোষণার পর সোমবার ৪ মার্চ মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন এবং আগের তফশীলের মধ্যে দাখিলকৃত ২ জন রয়েছেন।

এছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ১০ জন প্রার্থী এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

চেয়ারম্যান পদে যাঁরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন তাঁরা হলেন, কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক কয়েক যুগের সভাপতি মরহুম একেএম মোজাম্মেল হকের ছোট ছেলে, আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী কায়সারুল হক জুয়েল, ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম মাওলানা মোকতার আহমদের ছেলে আবদুল্লাহ আল মোর্শেদ ওরফে তারেক বিন মোকতার, কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ঈদগাঁও ফরিদ আহমদ কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ আবু তালেব, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি মরহুম এডভোকেট শাহাবুদ্দীন আহমদের ছেলে মাহমুদুল করিম মাদু, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও মরহুম এডভোকেট নজরুল ইসলামের ছেলে ইসতিয়াক আহমেদ জয়, কক্সবাজার পৌরসভার চারবারের নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান ও কক্সবাজার রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল আবছার, কক্সবাজার জেলা পরিষদের সদস্য, সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম এজেডএম শাহজাহান চৌধুরী লুতু মিয়ার ছেলে সোহেল জাহান চৌধুরী এবং জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ও জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক আতিকুর রহমান এবং ইসলামাবাদ ইউনিয়নের খোদাইবাড়ি গ্রামের আলী আকবরের ছেলে শ্রমিক লীগ নেতা সেলিম আকবর।

সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র দাখিলকারীরা হলেন ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মরহুম মুক্তিযোদ্ধা এস.টিএম রাজা মিয়ার ছেলে আমজাদ হোসেন ছোটন রাজা, তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা ও কক্সবাজার পৌরসভার কাউন্সিলর কাজী মোরশেদ আহমদ বাবুর ছোট ভাই কাজী রাসেল আহম্মদ নোবেল, ব্যবসায়ী ও সাতকানিয়া-লোহাগড়া সমিতির সহ-সভাপতি আবদুর রহমান, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযোদ্ধা স.ম নুরুন্নবীর ছেলে মোরশেদ হোসাইন তানিম, তরুণ রাজনীতিক চৌফলদন্ডীর হাসান মুরাদ আনাচ, কাইয়ুম উদ্দীন, রশিদ মিয়া, খুরুস্কুলের কামাল উদ্দিন, ইসলামাবাদ ইউনিয়ন পূজা কমিটির সভাপতি ও ইসলামাবাদ ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার বাবুল কান্তি দে ওরফে বাবুল মেম্বার এবং মিজানুর রহমান।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা হলেন বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর হেলেনাজ তাহেরা, কক্সবাজার জেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী আয়েশা সিরাজ ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদা তাহের।

পূণঃতফশীল অনুযায়ী আগামী ৬ মার্চ বাছাই, ১৩ মার্চ প্রত্যাহার, ১৪ মার্চ চুড়ান্ত প্রার্থীতালিকা প্রকাশ, ১৫ মার্চ প্রতীক বরাদ্দ এবং ৩১ মার্চ ভোটগ্রহণ করা হবে।

কক্সবাজার সদর উপজেলায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ করার কথা ইসি থেকে আগেই সিদ্ধান্ত দেয়া আছে।

কক্সবাজার সদর উপজেলার আওতাধীন কক্সবাজার পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়ন যথাক্রমে ইসলামপুর, ইসলামাবাদ, ঈদগাঁও, জালালাবাদ, পোকখালী, ভারুয়াখালী, চৌফলদন্ডি, খুরুশকুল, পিএমখালী, ঝিলংজায় ভোটার রয়েছেন ২ লাখ ৫৬ হাজার ৬৪৪ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৫ হাজার ৪৪২ এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ২১ হাজার ২০২ জন। মোট ১০৮টি ভোট কেন্দ্রে ভোট ৬৪৮টি বুথ রয়েছে।

এদিকে জেলা আওয়ামী লীগের একটি সুত্র জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগ সমর্থিত যে ৭ জন প্রার্থী রয়েছেন তাদের মধ্যে যে ক’জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ হবে, তাদের আগামী ৯ মার্চ ঢাকায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সমঝোতার জন্য ডাকা হবে। এ সমঝোতা বৈঠকে যে কোন ভাবেই হোক কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী ঘোষণার চেষ্টা করা হবে বলে সুত্রটি জানিয়েছেন।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!