কুতুবদিয়ায় বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন এড. ফরিদুল ইসলাম

কুতুবদিয়ায় বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন এড. ফরিদুল ইসলাম

:: মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী ::

কক্সবাজার জেলার দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিনে কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র দাখিলকারি দুইজনের মধ্যে আজিজুল হকের মনোনয়নপত্রটি অবৈধ ঘোষণা এবং এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর মনোনয়নপত্রটি বৈধ হওয়ায় ওই পদে একমাত্র প্রার্থী হিসাবে এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম আগামী ৮ মার্চ চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশের দিন বিধিমোতাবেক বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় দাপ্তরিক ভাবে নির্বাচিত ঘোষিত হবেন।

বিষয়টি কুতুবদিয়ার রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে রিটার্নিং অফিসারের স্টাফ অফিসার ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা মুঠোফোন কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন।

একই বিষয়ে কুতুবদিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জামশেদুল ইসলাম সিকদারও অনুরূপ জানিয়েছেন।

শিমুল শর্মা জানান, আজিজুল হকের মনোনয়নপত্রে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে যে আড়াইশ ভোটারের স্বাক্ষর রয়েছে-তার মধ্যে একজন ভোটার মারা গেছে অথবা দীর্ঘদিন থেকে বিদেশে আছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাই ওই ভোটারটিকে পাওয়া যায়নি। দ্বিতীয়ত, বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রদত্ত প্রতিবেদনে আজিজুল হক একজন ঋণখেলাপী। এ দু’টি মৌলিক কারণে কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আজিজুল হকের দাখিলকৃত মনোনয়নপত্রটি বাছাইকালে বাতিল করা হয়েছে।

একই পদে বৈধ হওয়া একমাত্র ব্যক্তি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন অর্থাৎ ৭ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করলে তাঁকে ৮ মার্চ দাপ্তরিক ভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে।

শিমুল শর্মা আরো জানান, আজিজুল হক তার মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণার বিরুদ্ধে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আপীল কর্তৃপক্ষ অর্থাৎ কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কাছে আপীল করতে পারবেন।

আজিজুল হকের মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণার বিরুদ্ধে আপীল বিষয়ে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ ছৈয়দ আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যে দু’টি কারণে আজিজুল হকের মনোনয়নপত্রটি বাতিল করা হয়েছে সেই কারণ দু’টি মৌলিক কারণ হওয়ায় আপীল আদালতেও তার মনোনয়নপত্র বৈধ না হওয়ার আশংকাই বেশি।

ফলে এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাওয়া আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী বর্তমানে কুতুবদিয়ার বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন।