জেলায় চেয়ারম‌্যান ভাইস-চেয়ারম‌্যান পদে মনোনয়নপত্র জমাকারি ৮৯ প্রার্থী

জেলায় চেয়ারম‌্যান ভাইস-চেয়ারম‌্যান পদে মনোনয়নপত্র জমাকারি ৮৯ প্রার্থী

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কক্সবাজারের সাত উপজেলায় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৮৯ জন চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী।

মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে নিজ নিজ কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন তারা।

চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে সাত উপজেলায় মোট ৮৯ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৩ জন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪৪ জন ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে ২২ জন প্রার্থী রয়েছেন।

জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে এই তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, কক্সবাজার সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শুধুমাত্র একজন। তিনি হলেন আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী একেএম মোজাম্মেল হকের ছেলে কায়সারুল হক জুয়েল।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন আবদুর রহমান

ভাইস-চেয়ারম্যান পদে ছয় প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন আবদুর রহমান, ছোটন রাজা, জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পদাক মোরশেদ হোসাইন তানিম, রশিদ মিয়া, কাজী রাসেল আহম্মদ নোবেল, কাইয়ুম উদ্দীন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বর্তমান ভাইস-চেয়াম্যান হেলেনাজ তাহেরা, জেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী আয়েশা সিরাজ ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদা তাহের।

মহেশখালীতে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন চারজন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী হোসাইন ইব্র্রাহিম, বড় মহেশখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শরীফ বাদশা, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাজেদুল করিম এবং এরফান উল্লাহ।

ভাইস-চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান মৌলভী জহির উদ্দীন, মোঃ শরীফ, আবু ছালেহ, মাহাবুবুল আলম, ফরিদুল আলম, শাহ নেওয়াজ ও গিয়াস উদ্দীন।

মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মনোয়ারা বেগম ও মিনুয়ারা ছৈয়দ।

কুতুবদিয়ায় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আটজন। এদের মধ্যে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে তিনজন এবং মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে দুইজন মনোনয়নপত্র জমা দেন।

চেয়ারম্যান পদে মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী ও জেলা পরিষদ সদস্য আজিজুল হক সাগর।

ভাইস-চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির হায়দার, আকবর খান ও ফরিদ উদ্দীন তালুকদার।

মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান সৈয়দা মেহেরন্নেসা ও সাবেক ভাইস-চেয়ারম্যান হাসিনা আকতার বিউটি।

পেকুয়ায় ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল কাসেম, স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এস.এম গিয়াস উদ্দিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, আওয়ামী লীগ নেতা আবুল শামা শামীম ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আমির আশরাফ চৌধুরী রুবেল মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে ছাত্রলীগ নেতা মেহেদী হাসান ফরায়েজী, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নাছির উদ্দিন বাদশাহ, আওয়ামী লীগ নেতা মাষ্টার নুর মোহাম্মদ, মেহের আলী, জাতীয় পার্টি নেতা সাজ্জাদুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা কায়সার উদ্দিন, আজিজুল হক মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেলা আওয়ামী লীগ নেত্রী উম্মে কুলসুম মিনু, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান নাজনীন ফারজানা লাভলী, মগনামার সাবেক এমইউপি হাছিনা বেগম মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

রামুতে চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রিয়াজ উল আলম এবং সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সোহেল সরওয়ার কাজল।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন, খুনিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ সিকদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সালাহ উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মুসরাত জাহান মুন্নী, বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিএনপি নেত্রী ফরিদা ইয়াছমিন, রামু উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী আফসানা জেসমিন পপি ও আওয়ামী লীগ নেত্রী মনোয়ারা ইসলাম নেভী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

উখিয়ায় ৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১৩ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, উখিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাহামুদুল হক চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আবুল মনসুর চৌধুরী ও ইমরুল কায়েস চৌধুরী।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদা, অ্যাডভোকেট রাসেল চৌধুরী, উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল আলম মাহবুব, মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন মেম্বার, যুবনেতা শাহ জাহান ও জাহাঙ্গীর আলম, এডভোকেট অনিল কান্তি বড়ুয়া, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) শাহীনা আক্তার ও হলদিয়া ইউপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমিনুল হকের সহধর্মিণী কামরুন্নেছা বেবী।

টেকনাফে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস-চেয়ারম্যান পদে ৮ জন ও সংরক্ষিত মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র আনুষ্ঠানিকভাবে জমা দিয়েছেন।

চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনিত সাবেক সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী, স্বতন্ত্রভাবে বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আহমদ এবং উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নুরুল আলম।

ভাইস-চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান মাওলানা রফিক উদ্দিন, সাংবাদিক জাবেদ ইকবাল চৌধুরী, হাফেজ নুরুল হক, সরওয়ার আলম, মৌলানা ফেরদৌস আহমদ জমিরী, দেলোয়ার হোছন বিজয়, নজরুল ইসলাম ও ফরিদুল আলমসহ ৮ জন, সংরক্ষিত মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে বর্তমান মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান তাহেরা আক্তার মিলি, সাবেক ভাইস-চেয়ারম্যান মিছবাহার ইউছুপ, পৌর কাউন্সিলর কোহিনুর আক্তার, নাজমা আলম, মনোয়ারা পারভীন ও সানজিদা বেগমসহ ৬ জন স্বশরীরে রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে হাজির হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

প্রসঙ্গত, ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৪র্থ ধাপে ২৬ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন। যাচাই-বাচাই ২৮ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৭ মার্চ, প্রতীক বরাদ্দ ৮ মার্চ ও নির্বাচন ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে।