লাখো মোমবাতি জ্বেলে ভাষা শহীদদের স্মরণ

 

লাখো মোমবাতি জ্বেলে ভাষা শহীদদের স্মরণ করলো নড়াইলবাসী। একই সঙ্গে ভাষা দিবসের ৬৮তম বার্ষিকীতে ৬৮টি ফানুশ ওড়ানো হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় শহরের কুরিরডোব মাঠে লাখো মোমবাতি এক সঙ্গে জ্বলে উঠে। প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন একুশ আলো উদযাপন পর্ষদের সহসভাপতি আ্যাডভোকেট ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক কচি খন্দকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মলয় কুন্ডু প্রমুখ।

৬ একরের বিশাল আয়তনের কুররডোব মাঠে প্রজ্জ্বলিত মোমবাতির সাহায্যে শহীদ মিনার, জাতীয় স্মৃতিসৌধ, বাংলা বর্ণমালা ও আল্পনা তুলে ধরা হয়। মোমবাতি প্রজ্জ্বলনে কয়েক হাজার শিশু-কিশোর অংশগ্রহণ করে।

এ ছাড়া একুশের আলোর আয়োজনে একই সময়ে পার্শ্ববর্তী চিত্রা নদীর তীরে বাঁধাঘাট চত্বরে ৫ হাজার মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। এ সময় ‘আমার ভায়ের রক্ত রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’ গানের মধ্য দিয়ে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের গণসংগীত শুরু হয়। নান্দনিক এ অনুষ্ঠানটি হাজার হাজার দর্শক উপভোগ করেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি নড়াইলে ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। এ আয়োজন সফল করতে ১ মাস পূর্ব থেকে সাংস্কৃতিক কর্মী, স্বেচ্ছাসেবক ও শ্রমিক কাজ শুরু করেন। তিন শতাধিক পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবক মাঠের সার্বিক নিরাপত্তা রক্ষা করেন।