মহেশখালীতে দুইপক্ষের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে খুন হলেন বৃদ্ধ

মহেশখালীতে দুইপক্ষের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে খুন হলেন বৃদ্ধ

মহেশখালীতে দুইপক্ষের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে খুন হলেন বৃদ্ধ

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর কুতুবজোম ইউনিয়নে দুইপক্ষের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে খুন হলেন আবদুর রহমান নামের ৭৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ।

বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) বিকাল ৫টার দিকে ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এই ঘটনায় খুন হওয়া বৃদ্ধ আবদুর রহমান ওই গ্রামের মৃত গুরা মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানিয়েছেন, কুতুবজোম ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া এলাকার সোলেমানের ছেলে মোহাম্মদ শরিফ ওরফে দলা ফকিরের কাছ থেকে চলতি লবণ মৌসুম শুরু হওয়ার আগে একই এলাকার মোঃ আলমের ছেলে নুর হোসেন পুরো লবণ মৌসুমে কাজের জন্য ৬০ হাজার টাকায় মজুরি ধরে ১০ হাজার টাকা অগ্রিম গ্রহণ করেন। উভয়ের মধ্যে চুক্তি ছিল, চলতি লবণ মৌসুমের শুরুতেই চুক্তির আরও ১০ হাজার টাকা পরিশোধ করা হবে। কিন্তু তিনদিন কাজ করার পরও ১০ হাজার টাকা না দেয়ায় নুর হোসেন পাশের অন্য লোকের লবণ মাঠে কাজ করতে শুরু করেন।

সূত্র মতে, এতে মোঃ শরিফ ক্ষিপ্ত হয়ে তার সঙ্গীয় লোকজনসহ অন্যের জমিতে কর্মরত অবস্থায় লবনচাষী নুর হোসেনকে বেধড়ক মারধর করতে থাকে। ওই সময় নিহত আবদুর রহমান ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন। লবণ মাঠে সংঘর্ষ দেখে তিনি মিমাংসার জন্য এগিয়ে যান। এতে ওই বৃদ্ধের উপরও ক্ষিপ্ত হয়ে মোঃ শরিফ ও তার লোকজন ধারালো দা দিয়ে আঘাত করেন। এতে ঘটনাস্থালেই আবদুর রহমান গুরুতর আহত হন।

পরে স্থানীয় লোকজন আবদুর রহমানকে উদ্ধার করে মহেশখালী উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সন্ধ্যা ৬টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনার খবর পেয়ে মহেশখালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মঞ্জুরুল আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আবদুর রহমানের লাশ ঘটনাস্থল থেকে ময়নাতদন্তের জন্য থানায় আনা হয়েছে।