পরিবারের দাবি, ৮ দিন ধরে নিখোঁজ

টেকনাফ সৈকতের বালুচরে নিখোঁজ যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ

টেকনাফ সৈকতের বালুচরে নিখোঁজ যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ

টেকনাফ সৈকতের বালুচরে নিখোঁজ যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফে নিখোঁজ এক যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ মিলেছে সমুদ্র সৈকতের বালুচরে। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

বৃহ¯পতিবার (২৯ নভেম্বর) সকালে টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালিয়া পাড়া মেরিন ড্রাইভ সড়কের কাছে সমুদ্র উপকূল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া লাশটি উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের আলীর ডেইল এলাকার মৃত ছিদ্দিক আহমদের ছেলে মোহাম্মদ হানিফের (২৮)। সুত্র মতে, নিহত যুবক এক সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ ছিলেন বলে তার পরিবার দাবি করেছেন।

সূত্র জানান, বৃহস্পতিবার সকালে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালিয়া পাড়ার কাছে সৈকতে একটি লাশ দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ইনচার্জ) আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করেন।

স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর নিয়ে মরদেহটি মোহাম্মদ হানিফের (২৮) বলে শনাক্ত করা হয়েছে।

নিহত হানিফের স্বজনদের দাবি, গত ৮ দিন ধরে হানিফ নিখোঁজ ছিল। তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। সম্ভাব্য স্থানে খোঁজ করেও তাকে পাওয়া যায়নি। সন্ধান পাওয়া যাবে মনে করে থানায় ডাইরিও করা হয়নি।

তাদের দাবি, হানিফের বিরুদ্ধে মামলা বা অভিযোগ নেই।

বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ও পুলিশ পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন বলেন, উদ্ধার লাশের বুক ও শরীরের কয়েক স্থানে গুলির চিহ্ন রয়েছে।

তিনি বলেন, ওই যুবক নিখোঁজ ছিলেন কিনা তা আমরা জানি না।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস বলেন, লাশ উদ্ধার হওয়া হানিফ একজন মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে থানায় মাদক আইনে পাঁচটি মামলা রয়েছে।

তিনি জানান, লাশটি উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।