মনোনয়ন পাননি যেসব তারকা

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। গতকাল রবিবার সকাল থেকে মনোনীত প্রার্থীদের চিঠি দেওয়া শুরু করে দলটি। এবারের নির্বাচনে সংস্কৃতি অঙ্গনের অনেক তারকাই আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। কিন্তু বেশির ভাগ তারকাই বঞ্চিত হয়েছেন দলীয় মনোনয়ন থেকে।

তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন সাবেক এমপি সারাহ বেগম কবরী, দুবারের সংরক্ষিত আসনের এমপি তারানা হালিম, জনপ্রিয় অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী ও শমী কায়সার, খল অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল, চিত্রনায়ক শাকিল খান, অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি, অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক, নির্মাতা মাসুদ পথিক।

বাংলা চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা সারাহ বেগম কবরী ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন। এবার তিনি ঢাকা-১৭ আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। এ আসন থেকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন চলচ্চিত্রের বরেণ্য অভিনেতা আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। যদিও ফারুক তার নির্বাচনী এলাকা গাজীপুর-৫ থেকেও মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। ওই আসনে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে শিশু ও মহিলাবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকিকে।

২০০৯ ও ২০১৪ সালে জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে এমপি হিসেবে নির্বাচিত হন এক জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী তারানা হালিম। এবার টাঙ্গাইল-৬ আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তিনি। কিন্তু আওয়ামী লীগ এ আসন থেকে মনোনয়ন দিয়েছে খন্দকার আবদুল বাতেনকে। অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন সময় নানা ইস্যুতে রাজপথে সোচ্চার দেখা গেছে রোকেয়া প্রাচীকে।

২০১৪ সালে সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য তিনি মনোনয়ন চেয়েছিলেন, কিন্তু পাননি। এবার সরাসরি সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে ফেনী-৩ আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তিনি। একই আসন (ফেনী-৩) থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন নব্বই দশকের আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী শমী কায়সার। তবে আওয়ামী লীগ সেখানে মনোনয়ন দিয়েছে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে।

বিএনপি থেকে দুই মেয়াদে ঢাকা সিটি করপোরেশনের ৯নং ওয়ার্ডের (গাবতলী) কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন খল অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। তবে একাদশ নির্বাচনে ঢাকা-১৪ থেকে তিনি মনোনয়নপত্র কেনেন আওয়ামী লীগের হয়ে। এ আসনে ক্ষমতাসীন দল মনোনয়ন দিয়েছে বর্তমান এমপি আসলামুল হককে।

বাগেরহাট-৩ থেকে মনোনয়নপত্র কেনেন এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিল খান। সেই আসনে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দিয়েছে হাবিবুন্নাহারকে। অভিনেত্রী-মডেল জ্যোতিকা জ্যোতি ময়মনসিংহ-৩ থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেন। সেখানে জোটের প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ছোট পর্দার জনপ্রিয় মুখ সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক টাঙ্গাইল-১ আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেন। তবে সেখানে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান এমপি ড. আবদুর রাজ্জাক।

নাটক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা মাসুদ পথিক নরসিংদী-৫ থেকে নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। সেখানে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দিয়েছে রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজুকে।