র‌্যাবের টানা ১১ ঘন্টার অভিযান

সাভার থেকে অপহৃত নিপা ‘লেগুনা বীচ’ হোটেলে উদ্ধার, দুই অপহরণকারি গ্রেপ্তার

সাভার থেকে অপহৃত নিপা কক্সবাজারের আবাসিক হোটেলে উদ্ধার, দুই অপহরণকারি গ্রেপ্তার

সাভার থেকে অপহৃত নিপা কক্সবাজারের আবাসিক হোটেলে উদ্ধার, দুই অপহরণকারি গ্রেপ্তার

রাজধানী ঢাকার পাশের উপজেলা সাভার থেকে অপহৃত ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী ও ৫ বছরের এক শিশুকে কক্সবাজার শহরের একটি অভিজাত আবাসিক হোটেল থেকে উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। দীর্ঘ ১১ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে ওই কিশোরী ও শিশুকে উদ্ধার করা হয়। ওই সময় দুইজন অপহরণকারিকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

শহরের ‘লেগুনা বীচ’ আবাসিক হোটেল থেকে অপহৃতা কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়। এই হোটেলটির মালিক জেলার আলোচিত, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়সহ সরকারের বিভিন্ন সংস্থার তালিকাভূক্ত শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী শাহজাহান আনচারী। যিনি নিজেকে আওয়ামী লীগ নেতা বলে পরিচয় দেন।

র‌্যাবের অভিযানে উদ্ধার হওয়া কিশোরী নুসরাত জাহান নিপা (১৫) মাদারীপুর জেলার শরিয়তপুর উপজেলার চিকুন্দী এলাকার মো. সাইফুল ইসলামের ছোট মেয়ে আর রাহুল (৫) হলো সাইফুল ইসলামের বড় মেয়ের ছেলে। তারা ঢাকার সাভার উপজেলার ছায়াবিথী এলাকার রোকসানা বেগমের বাড়ি থেকে ১৪ নভেম্বর অপহৃত হয়।

সাভার থেকে অপহৃত নিপা কক্সবাজারের আবাসিক হোটেলে উদ্ধার, দুই অপহরণকারি গ্রেপ্তার

অভিযানে ধৃত দুই অপহরণকারি হলো সাভার উপজেলার সবুজ বাতা এলাকার মো. জালালের ছেলে হাবিবুর রহমান (২৬) ও নোয়াখালী জেলার উদয়গঞ্জ উপজেলার অমনগর এলাকার আবদুর রাজ্জাকের মো. উজ্জল। এদের মধ্যে হাবিবুর রহমান হলো সাইফুল ইসলামের বড় মেয়ের জামাই।

র‌্যাবের কক্সবাজারস্থ কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মো. মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে শনিবার (১৭ নভেম্বর) ভোররাত ২টা থেকে কক্সবাজার শহরের কলাতলী এলাকার অভিজাত আবাসিক হোটেল ‘লেগুনা বীচে’ অভিযান শুরু করা হয়। এই অভিযান বেলা ১টা পর্যন্ত চলে। টানা ১১ ঘন্টা অভিযান শেষে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে অপহৃত কিশোরী ও শিশুকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়।

র‌্যাবের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মো. মেহেদী হাসান জানান, ধৃত দুই অপহরণকারি স্বীকার করেছে- গত ১৪ নভেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কিশোরী নুসরাত জাহান নিপা ও শিশু রাহুলকে অপহরণ করে কক্সবাজার নিয়ে আসে।

তবে তিনি জানান, শিশুটিকে অপহৃত বলা যাবে না। শিশুটি হলো ধৃত অপহরণকারি হাবিবুর রহমানের সাবেক স্ত্রীর ছেলে।

সাভার থেকে অপহৃত নিপা কক্সবাজারের আবাসিক হোটেলে উদ্ধার, দুই অপহরণকারি গ্রেপ্তার

র‌্যাব সূত্র মতে, শনিবার ঢাকার সাভারে বসবাসকারি মাদারীপুরের শরিয়তপুর উপজেলার মো. হামিদ খানের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম র‌্যাবের কক্সবাজার কার্যালয়ে অভিযোগ করেন যে, তার ছোট মেয়ে নুসরাত জাহান নিপা (১৫) ও বড় মেয়ের ছেলে রাহুলকে অপহরণ করে কক্সবাজার শহরের একটি আবাসিক হোটেলে এনে রাখা হয়েছে।

সাইফুল ইসলামের দাবি, তার বড় মেয়ে জামাতা হাবিবুর রহমান ও মো. উজ্জলসহ ৪/৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তি গত ১৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় বড় মেয়ের বাড়িতে ঢুকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে ছোট মেয়ে নিপা ও ছোট শিশু রাহুলকে অপহরণ করে। অপহৃত ছোট মেয়ে নিপা’ই তাকে ফোন করে জানায়, তাদের কক্সবাজার শহরের একটি হোটেলে আনা হয়েছে।

মেজর মেহেদী হাসান জানান, এই অভিযোগ পাওয়ার পরই তার নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি চৌকষ দল কক্সবাজার শহরের কলাতলী এলাকায় অভিযান শুরু করেন।

তিনি জানান, উদ্ধার হওয়া ভিকটিম ও অপহরণকারিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।