‘প্রধানমন্ত্রী কে হবেন’ জবাব দিলেন ড. কামাল

দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। এ সময় তারা সম্পাদকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদীর প্রশ্ন ছিল, যদি আপনারা বিজয়ী হোন তাহলে আপনাদের প্রধানমন্ত্রী হবেন কে? এ বিষয়ে ড. কামাল হোসেন জানিয়েছেন যে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনের জিতলে সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর গুলশান হোটেল লেক শোরে পত্রিকার সম্পাদকদের সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দরা মতবিনিময় করেন। সভায় দৈনিক আমাদের নতুন সময়ের সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান বলেন, ঐক্যফ্রন্টের যে জনসভাগুলো হয়, সেখানে আমি দেখেছি যে, পবিত্র কোরআন, বাইবেল, গীতা ও ত্রিপিটক পাঠ করা হয়। এছাড়া বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা নিয়ে বিস্তর আলোচনা হয়। এগুলো তাদের ঐক্যবদ্ধ চিন্তার ফল কী না? এগুলোতে সবাই একমত কী না? এছাড়া আমি উনাদের কাছে জানতে চেয়েছি, ১৫ আগস্টে মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ড এবং ২১ আগস্টের বিষয়ে কোন ঐক্যবদ্ধ চিন্তা আছে কী না?এগুলো নির্বাচনে আগে আমাদের সামনে লিখিতভাবে উপস্থাপন করবেন কী না?

তিনি জানান, আরেকটি প্রশ্ন ছিল, এই নির্বাচনের পর বাংলাদেশের দুটি বিশাল উদযাপন আছে। একটি হচ্ছে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী। আরেকটি হচ্ছে- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী। নির্বাচনে বিজয়ী হোন বা পরাজিত হন- এই উৎসগুলো সকলে মিলে পালন করবেন কী না? এসব বিষয়ে ঐক্যফ্রন্ট নেতারা বলেছেন, এগুলো বিষয়ে তারা তাদের অবস্থান পরিষ্কার করবেন।