চট্টগ্রামে ‘পাঠাও’ কারে ইন্টার্নি চিকিৎসককে ধর্ষণের চেষ্টা

চট্টগ্রামে এক নারী ইন্টার্নি চিকিৎসককে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ‘পাঠাও’ সার্ভিসের মিজানুর রহমান (৩৩) নামে এক প্রাইভেটকার চালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার সকালে নগরের বন্দর এলাকা থেকে মিজানুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) সহকারী কমিশনার আশিকুর রহমান এই খবর নিশ্চিত করেছেন।
সিএমপি পাহাড়তলী থানার উপ-পরিদর্শক অর্ণব বড়ুয়া বলেন, সদ্য এমবিবিএস শেষ করা ২৫ বছর বয়সী ওই তরুণীর বাসা নগরের পতেঙ্গা থানার বন্দরটিলা এলাকায়। চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস শেষ করে ইন্টার্নশিপ করছেন সেখানে।
তিনি বলেন, গত মঙ্গলবার ওই চিকিৎসক মেডিকেল কলেজে যাওয়ার জন্য বের হয়ে পাঠাও কল করেন। কল পেয়ে মিজানুর রহমান প্রাইভেটকার নিয়ে হাজির হন তার দেয়া ঠিকানায়।
পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, অতি বৃষ্টি আর রাস্তায় যানজটের অজুহাতে ওই চিকিৎসককে মেডিকেলে না নিয়ে পাহাড়তলী টোল রোডের এক নির্জন স্থানে নিয়ে যান মিজানুর রহমান। সেখানে গাড়ি থামিয়ে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ওই চিকিৎসককে ধর্ষণের চেষ্টা করেন তিনি।
মামলার তদন্তকারী এই কর্মকর্তা বলেন, ধর্ষণ চেষ্টার একপর্যায়ে তরুণী গাড়ি থেকে বেরিয়ে চিৎকার করতে থাকেন। তখন এক মোটরসাইকেল আরোহী তাকে উদ্ধার করে বাসায় পৌঁছে দেন।
এদিকে গাড়িতে থাকা ওই ওই চিকিৎসককের মোবাইল ফোন ও ভ্যানিটি ব্যাগ নিয়ে পালিয়ে যান পাঠাও চালক মিজানুর রহমান। এরপর বিকেলে ভোক্তভোগী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
প্রযুক্তির সহায়তায় তার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে রোববার ভোরে নগরের বন্দর এলাকা থেকে চালক মিজানুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
গ্রেফতার হওয়া মিজান কমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা বেপারীবাড়ি এলাকার মো. ইদ্রিস আলীর ছেলে। চট্টগ্রামের মহানগরের বন্দর নিউমুরিং আবাসিক এলাকায় থাকেন তিনি।