কোটা আন্দোলন নিয়ে ছাত্রলীগকে বাড়াবাড়ি না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

‘সৌদিসহ ১২টি দেশে অর্থ পাচার করেছে জিয়া পরিবার’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘ কোটা সংক্রান্ত আন্দোলন নিয়ে ছাত্রলীগের বিষয়ে যেন আর কোনও বাড়াবাড়ির অভিযোগ না আসে তার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।’

রবিবার (২২ জুলাই) দুপুরে সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শনিবার (২১ জুলাই) গণসংবর্ধনা দিতে পেরে সচিবালয়ে ওবায়দুল কাদের ছিলেন ফুরফুরে মেজাজে। এসময় সাংবাদিকদের সঙ্গে গণসংবর্ধনার বিষয়সহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন তিনি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জানান, গতকাল প্রধানমন্ত্রীকে চমৎকার আয়োজনের মাধ্যমে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। সেখানে লাখ লাখ মানুষ অংশগ্রহণ করেছে। আমাদের দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দেওয়া ছিল যে, তারা মিছিল সহকারে আসলেও যানবাহন চলাচলে যেন কোনও বিঘ্ন না ঘটে। সেভাবেই গতকাল যানবাহন চলেছে। এরপরও যদি কেউ কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে আমরা দুঃখিত। শুধু সরকারি দলই নয়, সকল দলকে জনগণের কথা চিন্তা করে ছুটির দিনে সভা-সমাবেশ করা উচিত।

এসময় কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতাদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া একটি কঠোর নির্দেশের কথাও উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, গতকাল (শনিবার) সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য শেষে মঞ্চ থেকে নামার সময় ছাত্রলীগ নেতারা এগিয়ে এলে নেত্রী (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) তাদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে বাড়াবাড়ির অনেক অভিযোগ আমার কাছে এসেছে। এমন কোনও অভিযোগ যেন আর না শুনি।’ ছাত্রলীগ নেতাদের এ বিষয়ে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান ওবাদুল কাদের।

জাতীয় নির্বাচনের বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে কোনও শর্তযুক্ত নির্বাচন হবে না। নির্বাচন হবে স্বাভাবিক নিয়ম মেনে এবং সংবিধানের আলোকে। খালেদা জিয়া ছাড়া নির্বাচন হবে না বিএনপির এই ঘোষণায় চক্রান্ত, নাশকতা ও ষড়যন্ত্রের আশঙ্কা করছে সরকার। নির্বাচনকালীন সরকারে বিএনপির আসার কোনও সুযোগ নাই। বিএনপির সঙ্গে আলোচনারও আর কোনও সুযোগ নাই।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন স্বাধীনভাবে ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারছে। তবে যদি তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে কারও কোনও অভিযোগ থাকে তাহলে তা নির্বাচন কমিশনকে বলুন।’

তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচনের সময় সরকারি কোনও কর্মকর্তা কর্মচারী কোনও প্রার্থীর পক্ষে যেন কাজ না করে এবং কোনও প্রভাব না খাটায় সে ব্যাপারে সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’