তানভীর হত্যাকাণ্ড নিয়ে রাজনীতি না করার আহ্বান জানালো পরিবার

কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়ায় সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে নির্মম ভাবে খুন হওয়া তানভীর হত্যাকাণ্ড নিয়ে কক্সবাজার পৌর নির্বাচনের এই সময়ে হীন স্বার্থ ও ফায়দা হাসিলের লক্ষ্যে রাজনীতিকরণ না করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে তাঁর পরিবার।
পরিবারের পক্ষে প্রয়াত তানভীরের বড় ভাই মোহাম্মদ মুহসিন এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা শহীদ এ এইচ এম তানভীরের শোকাহত পরিবার। আমরা অত্যন্ত শান্তিপ্রিয় ও দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। গত ২৯ জুন আনুমানিক দুপুর আড়াইটায় বাঁচা মিয়া ঘোনা, দক্ষিণ রুমালিয়াছড়া এলাকার কতিপয় চিহ্নিত চাঁদাবাজ, পেশাদার খুনী, প্রকাশ্য ইয়াবা ব্যবসায়ী ও সেবনকারী এবং থানার তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী কর্তৃক আকস্মিকভাবে একজন অত্যন্ত মেধাবী ও সম্ভাবনাময়ী ছাত্র এবং এলাকার মাদক বিরোধী বলিষ্ট কন্ঠস্বর সকলের অতিপ্রিয় ও ভালবাসার পাত্র তানভীরকে পরিকল্পিতভাবে উপুর্যুপুরী ধারালো ছুরির আঘাতে নির্মমভাবে হত্যা করে। তাঁর নামাজে জানাযায় হাজারো ছাত্র শিক্ষক ও কক্সবাজার পৌর এলাকার আপামর জনতার স্বত:ষ্ফুর্ত উপস্থিতি তার প্রতি অগাধ ভালবাসার বহি: প্রকাশ। জানাযার মাঠে ক্ষুব্ধ জনতা খুনী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ, দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি ও অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানায় আমরা।
শোকার্ত পরিবারের পক্ষে কক্সবাজার পৌর নির্বাচনের এই সময়ে তানভীর হত্যাকান্ডকে রাজনৈতিক ভাবে হীন স্বার্থ ও ফায়দা হাসিলের লক্ষ্যে রাজনীত করণ না করার জন্য আকুল আবেদন জানাচ্ছি। ঘটনার দিনেই আমরা কক্সবাজার মডেল থানায় ১২জনকে আসামী করে একটি নিয়মিত হত্যা মামলা এজাহার দায়ের করি। ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা নিয়মিত মামলা রুজু করে। পুলিশ প্রশাসন অত্যন্ত দ্রুত দক্ষতার সাথে হত্যা মামলার ২নং ও ১০ নং আসামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। তার জন্য পুলিশ প্রশাসনকে আমরা শোকাহত পরিবারের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। প্রত্যাশা করছি যে, অনতিবিলম্বে বাকী সকল খুনীদের আইনের আওতায় আনা হবে। এলাকার সচেতন নাগরিক ও সচেতন অভিভাবক সহ কক্সবাজারের স্থানীয় সকল সনামধন্য রাজনীতিবীদগনের প্রতি আমাদের আকুল আবেদন, হত্যাকারীদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসার জন্য সহযোগিতা চাই।