খুলে গেল সিএনজির চাকা, অল্পের জন্য বাঁচলো তরুণ


কক্সবাজার শহরের কাছাকাছি উপজেলা রামু থেকে নাইক্ষংছড়ি যাওয়ার পথে সিএনজির চাকা খুলে গিয়ে চার যুুবক আহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন রায়হান উদ্দিন নামে এক তরুণ। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) বেলা ১২টার দিকে কক্সবাজারের পাশ্ববর্তী উপজেলা নাইক্ষংছড়ির আদর্শ গ্রাম এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আহতদের বর্তমানে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আহতরা হলেন, রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি এলাকার কবির আহম্মদের ছেলে রায়হান উদ্দিন (১৮), ঈদগাঁও এলাকার মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে মো: শাহআলম এবং তাৎক্ষনিক বাকি দুইজনের নাম পাওয়া যায়নি।
এই ঘটনায় রামু থেকে নাইক্ষংছড়ির উদ্দেশ্যে আঙ্কেলের বাড়িতে যাওয়া রায়হান নামে এক তরুণ গুরুতর আহত হয়েছেন। কক্সবাজার সদর হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলেছেন, তার মাথায়, মুখে এবং শরিরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। এছাড়াও তার ডান পায়ের অবস্থা ভালো নই।
রায়হানের বাবা কবির আহম্মদ বলেন, ছেলে সকালে আঙ্কেলের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। এবং পথিমধ্যে যে সিএনজি করে যাচ্ছিলো ওই সিএনজির ডান পাশের চাকা খুলে যায়। ওই ঘটনায় সিএনজি থেকে পড়ে গিয়ে ছেলে রায়হান উদ্দিনের শরীরের উপর সিএনজির চাপ পড়ে।
তিনি জানান, ছেলের ডান পা নাড়াচড়া করছে না। মুখে এবং মাথা ফেটে গেছে।
তিনি বলেন, স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমাদের খবর দিলে আমরা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসি।
বাবা কবির আহম্মদ বলেন, এক বছর আগে ছেলে রায়হানের মা পৃথিবী থেকে চলে গেছেন। ছেলের অবস্থা দেখে মনকে বুঝাতে পারছি না। কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ৫ম ওয়ার্ডের অর্থোপেডিক্সে বেডে এই গুরুতর আহত হওয়া রায়হানের চিকিৎসা চলছে। এই ঘটনায় সিএনজির চালক পালিয়ে গেছেন। তবে তার গাড়িটি রামু থানা জব্দ করে রেখেছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!