৬ লাখ মানুষ সুস্থ হলেন বিশ্বজুড়ে

নারায়ণগঞ্জে একদিনেই ৫০ জনে ছড়াল করোনা

বিশ্বজুড়ে অবিচ্ছিন্ন লকডাউনে কমে এসেছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। একইসঙ্গে আক্রান্ত রোগীরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন। সারাবিশ্বে ২৪ লাখ ৬ হাজার ৯০৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে এক লাখ ৬৫ হাজার ৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ১৭ হাজার ১৩ জন।

ইতালিতে কমছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা
নতুন করে তিন হাজার ৪৭ জনের শরীরে এ ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছে ৪৩৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ১২৮ জন। সব মিলিয়ে প্রায় ৪৭ হাজার ৫৫ জন সুস্থ হয়ে নিজ পরিবারের কাছে ফিরেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে সুস্থ হয়েছেন ৭১ হাজার মানুষ
যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এরইমধ্যে সুস্থ হয়ে বড়ি ফিরেছেন অনেক মানুষ। একদিনে দেশটিতে এক হাজার ৫৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এবং আক্রান্ত হয়েছে ২৫ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৪০ হাজার ৫৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭১ হাজার ৩ জন।

চীনের ২৪ ঘণ্টায় ১৬ জন আক্রান্ত
চীনে গত ২৪ ঘণ্টায় মাত্র ১৬ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮২ হাজার ৭৩৫ জন আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৩২ জনের। দেশটিতে মোট ৭৭ হাজার ৬২ জন মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

স্পেনে একদিনে ৪১০ জনের মৃত্যু
স্পেনে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৪ হাজার ২৫৮ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৭৪ জন। দেশটিতে ৭৭ হাজার ৩৫৭ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

এছাড়া ফ্রান্সে ৩৬ হাজার ৫৭৮ জন, জার্মানিতে ৮৮ হাজার, ইরানে ৫৭ হাজার, ব্রাজিলে ১৪ হাজার, কানাডায় ১১ হাজার ৮৮৩ জন, সুইজারল্যান্ডে ১৭ হাজার ৮০০ জন মানুষ সুস্থ হয়েছেন।

চীনের উহান শহরে গত বছর ডিসেম্বর থেকে দেখা যাওয়া এই নতুন ভাইরাস মূলত ফুসফুসে বড় ধরণের সংক্রমণ ঘটায়। জ্বর, কাশি, শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যাই মূলত প্রধান লক্ষ্মণ। নতুন ভাইরাসটির জেনেটিক কোড বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে এটি অনেকটাই সার্স ভাইরাসের মতো। এখনও পর্যন্ত এ ভাইরাসের কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!