লকডাউনে ধান কাটতে শ্রমিক সংকটের শঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক, উখিয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের অন্যতম কাছের উপজেলা উখিয়ার কিছু এলাকায় বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে পুরোদমে কাটা শুরু হবে সোনালী ফসল বোরো।

অপরদিকে মহামারি করোনার সংক্রমণ রোধে দেশজুড়ে চলছে কঠোর লকডাউনের বিধিনিষেধ। রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে পুরো কক্সবাজার জেলায় ধান কাটার শ্রমিকরা কিভাবে যাওয়া আসা করবেন তা নিয়ে দুশ্চিন্তার ছায়া দেখা দিয়েছে গৃহস্থের মুখে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এ বছর বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। উখিয়ার বিভিন্ন এলাকায় আগাম জাতের ধান পাকায় তা কাটতে শুরু করেছেন কৃষকরা। কিন্তু লকডাউনের কারণে ধান কাটার শুরুতেই শ্রমিক সংকটের চিন্তায় ভুগছেন কক্সবাজার জেলার বোরোচাষিরা।

সুত্র মতে, পুরো কক্সবাজার জেলায় বিভিন্ন এলাকায় ধান কাটার শ্রমিক যেত রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের শ্রমিকরা। এবার লকডাউনের কারণে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাতায়াতের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ থাকায় শ্রমিক সংকটের আশঙ্কা করছেন অনেকেই।

কৃষকরা বলছেন, বোরো ধানের ওপর নির্ভর করে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা উখিয়ার মানুষের জীবন-জীবিকা নির্বাহ হয়। এপ্রিলের প্রথম দিকে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন এলাকায় আগাম জাতের ধান পাকতে শুরু করেছে। কিন্তু করোনার প্রাদুর্ভাব ও লকডাউনে শ্রমিক সংকটের আশঙ্কায় পড়েছেন তারা। করোনা সংক্রমণ ও লকডাউনের কারণে এবার বিভিন্ন এলাকা থেকে ধান কাটার শ্রমিকরা আসতে চাচ্ছেন না। এলেও শ্রমিকদের বেশি মজুরি ও সুযোগ-সুবিধা দিয়ে ধান কাটতে আনতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা।

অপরদিকে স্থানীয়ভাবে লোকজনের সংকট দেখা দিতে পারে। শ্রমিক সংকটে পড়লে ক্ষেতের পাকা ধান নিয়ে বিপাকে পড়তে পারেন চাষিরা।

উখিয়ার রত্নাপালং ইউনিয়নের কৃষক মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, এবার ধান ভালো হয়েছে। তবে কাটা নিয়ে চিন্তায় রয়েছি।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!