মহেশখালীতে বাবার হাতে ছেলে ও দুলাভাইয়ের হাতে শ্যালক খুন

মহেশখালীতে বাবার হাতে ছেলে ও দুলাভাইয়ের হাতে শ্যালক খুন

ইকবাল ফারুক, মহেশখালী 
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীতে বাবা ও ভাইয়ের হামলায় আরেক ভাই খুন হয়েছেন। আহত হয়েছেন একই পরিবারের আরও ৪ জন। তাদের অবস্থাও আশংকাজনক হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

ঘটনার পরপরই মহেশখালী থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে মূল ঘাতক বাবা আলতাফ ও নিহতের অপর ভাই টিপুকে আটক করেছে এবং বাকি সন্ত্রাসিদের ধরতে পুলিশী অভিযান চলমান রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবদুল হাই।

নিহত ব্যক্তির নাম জুবাইর (৩৫)। আহতরা হলেন নিহতের ভাই মোঃ ফয়সাল (২৮), বোন জুনু বেগম (৪০), মা জান্নাত বেগম (৫৫) ও ভাগনী শামিমা আকতার (১৬)।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়নের জামিরছড়ি গ্রামে। মূলত জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বাবা-ছেলের মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে।

নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসি জানান, ঘাতক বাবা আলতাফ হোসেনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসি দিবাগত রাত ১টার দিকে ঘুমন্ত অবস্থায় হামলা চালিয়ে জুবাইর ও অন্যদের এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জুবাইরকে মৃত ঘোষণা করেন এবং বাকিদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে কথা কাটাকাটির জের ধরে মহেশখালীর মাতারবাড়িতে দুলাভাইয়ের হাতে শ্যালক কফিল উদ্দিন খুন হয়েছেন।

১১ মে (মঙ্গলবার) বিকাল ৪টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কফিল উদ্দিন মৃত্যুবরণ করেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত সোমবার মাতারবাড়ির উত্তর রাজঘাটে কফিল উদ্দিন তার ভগ্নিপতি (দুলাভাই) রুবেলের কাছ থেকে তার পাওনা টাকা চাইলে এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটি হয়। এরই সূত্র ধরে হাতাহাতি হলে কয়েকজন কফিল উদ্দিনের উপর হামলা করে। এ সময় রুবেল কফিল উদ্দিনকে ছুরি দিয়ে আঘাত করলে মারাত্মক ভাবে আহত হন।

ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা কফিল উদ্দিনকে উদ্ধার করে চকরিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যজনক চিকিৎসক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। মঙ্গলবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় কফিল উদ্দিন মারা যান।

নিহত কফিল উদ্দিন স্থানীয় মোক্তার আহমদের ছেলে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!