দখল-ভরাট হচ্ছে ‘সামরাই খাল’, মামলা করল নদী পরিব্রাজক দল

দখল-ভরাট হচ্ছে ‘সামরাই খাল’, মামলা করল নদী পরিব্রাজক দল

বিশেষ প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী বৃহৎ বাঁকখালী নদীর শাখা নদী ‘সামরাই’ খালটি অবৈধ দখলদারদের হাতে বেদখল ও ভরাট হয়ে যাচ্ছে। নদীমাতৃক এই দেশে ছোট বড় নদ-নদী, খাল, জলাশয় ভরাট করে দখলের পাঁয়তারা করে আসছে কিছু নদী দখলকারী নব্য রাজাকার।
এমতাবস্থায় জেলার গুরুত্বপূর্ণ ‘সামরাই খাল’টি অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়ায় দখলদারদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের তারুণ্যনির্ভর সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবু হেনা মোস্তফা কামাল।

সোমবার (১ ‍জুন) সকালে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্র্রেট আদালতে মামলাটি করেন কক্সবাজারের পরিবেশবাদী এই আইনজীবী।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবু সুফিয়ান বিষয়টি আমলে নিয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে (ভার্চ্যুয়াল) দায়ের করা মামলায় ৩ জন ভূমি দখলকারিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযুক্তরা হলেন কক্সবাজার পৌরসভার সিকদার পাড়া এলাকার মৃত নগেন্দ্র মল্লিকের ছেলে সুভাষ মল্লিক ও তপন মল্লিক এবং বাবুল মল্লিকের স্ত্রী নিতা মল্লিক।

মামলার বিবরণী মতে, কক্সবাজার পৌরসভার অন্যতম খাল ‘সামরাই’ ঝিলংজা মৌজায় সরকারের ১নং খাস খতিয়ানের অন্তর্ভূক্ত বিএস দাগ-৬৪৫২ ও বিএস দাগ-৬৫৩৬, বিএস দাগ-৬৫৭৩ এলাকায় দখলকারীরা দেয়াল নির্মাণ করে ও রাস্তা দখল করে খালের নাব্যতা নষ্ট ও চলাচলের পথ বাধাগ্রস্ত করেছেন। এই বিষয়ে ফৌজদারী কার্যবিধি-১৩৩ ধারামতে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

এ ব্যাপারে মামলার বাদী অ্যাডভোকেট আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, হাইকোর্ট নদীকে জীবন্ত সত্তা হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন। নদীর দখলকারিরা নদীর সেই সত্তা অস্বীকার করছেন। আমরা তাদের উচ্ছেদ চাই।

নদী নিয়ে কাজ করা বাঁকখালী বাঁচাও আন্দোলনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও কক্সবাজার সাংবাদিক কোষ প্রণেতা আজাদ মনসুর বলেছেন, নদী, খাল, জলাশয় মায়ের জরায়ু। নদী দখলবাজদের নব্য রাজাকার বলেছেন সরকার। কোন নদী দখলবাজদের নির্বাচনে অংশ নিতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। শুধুমাত্র নদীকে নিয়ে আলাদা নদী রক্ষা কমিশন হয়েছে। এরপরও সর্বত্র নদী, খাল ও জলাশয় ভরাট ও দখলবাজি ভাবিয়ে তুলছে সচেতন পরিবেশবাদীদের।

তিনি দ্রুত এসব দখলবাজদের আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনদের কঠোর হওয়ার অনুরোধ জানান।

এদিকে নদী, খাল, জলাশয় দখলবাজদের বিরুদ্ধে মামলা করায় একাত্মতা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল, বাঁকখালী বাঁচাও আন্দোলন, বাংলাদেশ রিভার ফাউন্ডেশন ও সিইএইচআরডিএফ। সংগঠনগুলোর দাবি, জেলা শহরের বিভিন্ন শাখা নদী, খাল ও ভরাটখাল গুলো দখলবাজদের হাত থেকে উদ্ধার করতে বাংলাদেশ নদী রক্ষা কমিশনসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ করতে হবে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!