টেকনাফে ‘পুরাতন রোহিঙ্গা’দের বিক্ষোভের চেষ্টা

টেকনাফে ‘পুরাতন রোহিঙ্গা’দের বিক্ষোভের চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকনাফ
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফুড কার্ডকে (রেশন কার্ড) কেন্দ্র করে বিক্ষোভের চেষ্টা হয়েছে। গত জুন মাস থেকে ২০১৭ সালে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ডের মতো ১৯৯২ সালে আসা রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ড একই করায় এই বিক্ষোভ প্রদর্শনের চেষ্টা চালানো হয়। গত জুলাই মাসে ওই নিবন্ধিত রোহিঙ্গারা রেশনও গ্রহণ করছে না।

সূত্রে জানা যায়, টেকনাফের নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে (১৯৯২ সালে আসা রোহিঙ্গা) পুরাতন ও নতুন (২০১৭ সালে আসা) রোহিঙ্গারা বসবাস করে আসছেন। এতোদিন পুরাতন রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ড নতুন রোহিঙ্গাদের ফুডকার্ডের চেয়ে ভিন্ন ছিল। সকল রোহিঙ্গাদের মাঝে সমপরিমাণ খাবার বিতরণের জন্য পুরাতন রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ড ফেরত নিয়ে গত জুন মাসে নতুন ফুড কার্ড ইস্যু করা হয়। নতুন ফুড কার্ড অন্যান্য ক্যাম্পের সমসাময়িক (২০১৭ সালে) আসা নতুন রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ডের অনুরূপ হওয়ায় নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্পের পুরাতন রোহিঙ্গারা নতুন ফুড কার্ড গ্রহণ না করে জুলাই মাসের রেশন উত্তোলন করেনি।

নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের পুরাতন রোহিঙ্গাদের দাবি, নতুন রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ড এবং তাদের ফুড কার্ড একই রকম হওয়াতে রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের পুরাতন ও নবাগত রোহিঙ্গাদের সমান মর্যাদা দেয়া হচ্ছে। তাই তারা কোনভাবেই এটা মেনে নেবে না।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি) ও ইউএনএইচসিআর কর্তৃপক্ষ ফুড কার্ড বিষয়ে ওই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে এবং এই সিদ্ধান্তে এখনও অটল রয়েছে।

কক্সবাজার ১৬ এপিবিএন (আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন) অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মো. তারিকুল ইসলাম তারিক ওই তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ফুড কার্ড বিষয়টি নিয়ে বর্তমানে ক্যাম্পের পুরাতন রোহিঙ্গাদের মধ্যে অসন্তোষ বিরাজ করছে। গত কয়েকদিন তারা এ নিয়ে বিক্ষোভ করার চেষ্টা করলে তাদের এপিবিএন ক্যাম্পে ডেকে বোঝানো হয় এবং তারা তা মেনে নেয়।

তিনি জানান, ওই বিষয়ে ক্যাম্প ইনচার্জ (সিআইসি) এবং ইউএনএইচসিআরের সাথে আলোচনার মাধ্যমে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানের জন্য সব প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। আজ রবিবার ভোর থেকেই পুরাতন রোহিঙ্গারা নয়াপাড়া ক্যাম্পে বিক্ষোভ প্রদর্শন করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। তবে এপিবিএন সতর্ক রয়েছে এবং পাহারা জোরদার করা হয়েছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!