কক্সবাজারে একদিনে রেকর্ড ২৩৬ জন করোনা ‘পজিটিভ’

বাংলাদেশে করোনার ১৪০ ভ্যারিয়েন্ট, ছড়াচ্ছে ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’

নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

চলমান কঠোর লকডাউনেও কক্সবাজার জেলায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। প্রতিদিন সংক্রমণে রেকর্ড হচ্ছে, আবার সেই রেকর্ড ভাঙছে। শুক্রবারও (৯ জুলাই) রেকর্ড ২৩৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ও কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে দুই ধরণের নমুনা টেষ্টে এই সংক্রমণের তথ্য মিলেছে।

সুত্র মতে, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৭৬৭ জনের নমুনা টেষ্টে ২০৪ জন ও কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ৬১ জনের র‌্যাপিড এন্টিজেন টেষ্টে (আরএটি) ৩২ জনের রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ এসেছে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ট্রপিক্যাল মেডিসিন ও সংক্রামক রোগ বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শাহজাহান নাজির গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে শনাক্ত হওয়া ২০৪ জন করোনা রোগীর মধ্যে ৮ জন আগে আক্রান্ত হওয়া রোগীর ফলোআপ টেস্ট রিপোর্ট। অবশিষ্ট নতুন শনাক্ত হওয়া ৯২ জনের মধ্যে একজন বান্দরবান জেলার রোগী এবং ৩ জন চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার রোগী। অবশিষ্ট ১৯২ জনের সকলেই কক্সবাজার জেলার রোগী।

তাদের মধ্যে ৬০ জন রোহিঙ্গা শরণার্থী আছেন। এছাড়াও সদর উপজেলায় ৭৩ জন, উখিয়া উপজেলায় ২৭ জন, রামু উপজেলায় ৫ জন, টেকনাফ উপজেলায় ১৭ জন, চকরিয়া উপজেলায় ১ জন, পেকুয়া উপজেলায় ২ জন, কুতুবদিয়া উপজেলায় ১ জন এবং মহেশখালী উপজেলার ৬ রোগী রয়েছেন।

এদিকে র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট পদ্ধতিতে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে করোনা শনাক্ত হওয়া ৩২ জনের মধ্যে ৩০ জন কক্সবাজার সদর উপজেলার, একজন উখিয়া উপজেলার এবং একজন মহেশখালী উপজেলার রোগী।

অপরদিকে শুক্রবার (৯ জুলাই) পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৩ হাজার ৫৭৫ জন। তাদের মধ্যে ৮ জুলাই পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জেলায় মৃত্যুবরণ করেছে ১৩৫ জন। যাদের মধ্যে ২০ জন রোহিঙ্গা শরণার্থী আছেন। আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুর হার ১.১৮ শতাংশ।

একইসময়ে সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৪৮০ জন করোনা রোগী। আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৮৬.০১ শতাংশ।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!