কক্সবাজারের করোনা রোগী শাহআলম ৫ দিন আত্মগোপনে ছিলেন!

করোনা উপসর্গ নিয়ে ৫ দিন আগে ঢাকাফেরত মাছব্যবসায়ী কক্সবাজারে, এলাকাজুড়ে আতঙ্ক

আনছার হোসেনমহিউদ্দিন মাহী
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়ার শাহআলম ঢাকা থেকে ফিরে টানা পাঁচদিন আত্মগোপনে ছিলেন। ওই সময়ে তিনি নিকটাত্মীয় ছাড়াও বিভিন্ন দোকানে বসে আড্ডা দিয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি অনেকের সংস্পর্শে এসেছেন। এ নিয়ে ওই এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

এই মাছ ব্যবসায়ী গত ১৮ এপ্রিল ঢাকা থেকে কক্সবাজার আসেন। তারপর থেকে তিনি জ্বর, সর্দি ও কাশির উপসর্গ নিয়ে ঘরেই ছিলেন। এই সময়ে তিনি বাড়ির পাশের ফার্মেসি থেকে ওষুধ কিনে খেয়েছেন। দোকানে বসে আড্ডা দিয়েছেন।

মাছ ব্যবসার সুত্রে তিনি ঢাকায় যাওয়া আসা করতেন। ওই সময়ে তিনি শহরের আরেক করোনা রোগী আবুল কালামের সংস্পর্শে ছিলেন বলে জানা গেছে।

শাহআলম দক্ষিন রুমালিয়ারছড়া আবু ছিদ্দিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী আবু ছৈয়দের ছেলে।

এলাকার একাধিক সূত্র জানান, ঢাকা থেকে ফেরার পর গত কয়েকদিন ধরে তার গায়ে জ্বর, কাশি এবং সর্দি রয়েছে। তবুও এই বিষয়টি গোপন রাখেন তিনি। ফার্মেসী থেকে কিছু ওষুধ কিনে খান। সর্বশেষ এলাকার মানুষ তাকে নিয়ে করোনাভাইরাস আছে- এমন সন্দেহ হলে বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে এলাকাবাসি।

এলাকাবাসির দাবি, এক পর্যায়ে এলাকা থেকে কৌশলে পালিয়ে যান তিনি। কিন্তু তার এক নিকটআত্মীয় সাবেক মেম্বার ও সাংবাদিক শহিদুল্লাহর মধ্যস্থতায় বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) বেলা পৌণে ১২টার দিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে করোনাভাইরাসের স্যাম্পল নেয়া হয়েছে শাহ আলমের।

তিনি জানান, স্যাম্পল নিয়ে তাকে বাড়িতে আনা হয়েছিল। হাসপাতাল থেকে তাকে বাড়িতে একটি রুমে আপাতত হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যাতে ওই রুমে কাউকে প্রবেশ এবং কেউ যেন বের না হয় সেই নির্দেশনাও দেয়া হয়।

ওদিকে করোনা পজিটিভ হওয়ার পর এলাকাবাসি জানান, গত বৃহস্পতিবার জেলা সদর হাসপাতালে স্যাম্পল সংগ্রহের পরও শাহআলমকে বাড়ির পাশের দোকানে ও খেলার মাঠে দেখা গেছে। ঢাকা থেকে ফেরার পর থেকে এলাকায় দাফিয়ে বেড়িয়েছেন।

এ নিয়ে এলাকাবাসিদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। তাদের আশংকা, শাহআলমের কারণে আরও কতজনের যে করোনা ছড়িয়েছে তা এখনও বোঝা যাচ্ছে না। শীঘ্রই হয়তো জানা যাবে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!