এক শিল্পপতির গোপন প্রেমের বেদনাবিধূর কাহিনী

এক শিল্পপতির গোপন প্রেমের বেদনাবিধূর কাহিনী

ডেস্ক রিপোর্ট
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

(বলা হয়ে থাকে প্রেমের ফাঁদ পাতা ভুবনে। এই ফাঁদে নিয়মিত পড়ছে আমজনতা থেকে শুরু করে বিশিষ্টজন। আজ প্রকাশিত হলো এক শিল্পপতির অশ্রুত প্রেমকাহিনী।)

ভারতের মোস্ট এলিজিবল ব্যাচেলর রতন টাটা কেন বিয়ে করেননি? টাটা সাম্রাজ্যের মুকুটহীন সম্রাট, সুদর্শন রতন টাটা অবিবাহিতই থেকে গেলেন আজীবন। কিন্তু কেন? কোনও তরুণী হৃদয় কি ঝড় তোলেনি এখন আশি পার করা এই শিল্পপতির জীবনে। রতন টাটা নিজের মুখেই শুনিয়েছেন সেই কাহিনী। হ্যাঁ, প্রেমে পড়েছিলেন রতন টাটা তাঁর কুড়ি বছর বয়েসের সীমানায়।

তখন তিনি আমেরিকার লস এঞ্জেলসের একটি আরকিটেক্ট ফার্মে ট্রেনিং নিচ্ছেন, সেই সময় সে এসেছিলো তদানীন্তন রতন টাটার জীবনে। ভালোবাসার বন্যায় ভেসে গিয়েছিলেন রতন। হয়তো বিয়েটা হয়েও যেত। কিন্তু, সেই সময় খবর আসে যে দেশে রতন টাটার ঠাকুমা খুব অসুস্থ। বাবা নাওয়াল টাটা কিংবা মা সুন্নি টাটার থেকেও রতন বেশি ভালোবাসতেন ঠাকুমাকে। ঠাকুমার অসুস্থতার খবর শুনেই দেশে চলে আসেন রতন।

তখন তো যোগাযোগ ব্যবস্থা আজকের মতো ছিল না। নীলনায়না সুন্দরীর সঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে যান রতন। দুজনের মধ্যে যোগাযোগ ক্ষীণ হয়ে আসে। ঠাকুমার মৃত্যুর পর রতন যখন আমেরিকায় আসেন তখন ওই সুন্দরী অন্যের কণ্ঠলগ্না, অন্যের স্ত্রী।

ভগ্নহৃদয় রতন টাটা আর কাউকে মন দিতে পারেননি। তাই তিনি আজও অবিবাহিত। না, সেই তরুণী যিনি আজ বৃদ্ধা তার নাম প্রকাশ করেননি রতন টাটা। শুধু বলেছেন, ও থাক আমার হৃদয়ের ঐশ্বর্য হয়ে। ঐশ্বর্যকে কেউ প্রকাশ্যে বের করে মলিন করে?
সুত্র : মানবজমিন

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!