ঈদগাঁওতে পরীক্ষায় বোনের ‘প্রক্সি’ দিতে এসে ধরা পড়ল বড় বোন!

প্রাথমিকের বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈদগাঁও
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষায় ছোট বোনের পরিবর্তে প্রক্সি দিতে এসে রিনা আক্তার নামের এক নারীকে হল থেকে বের করে দিয়েছে হল কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে চলমান বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে তাকে বের করে দেয়া হয় বলে নিশ্চিত করেছেন একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী পরীক্ষার্থী।

প্রক্সি দিতে আসা রিনা আক্তার ইসলামাদ ইউনিয়নের টেকপাড়া এলাকার আবদুল্লাহর স্ত্রী।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এসএসসি পাস করার উদ্দেশে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন একই ইউনিয়নের আউলিয়াবাদ এলাকার শফিকুল ইসলামের মেয়ে রুনা আক্তার। তবে তার রেজিষ্ট্রেশন নম্বর পাওয়া যায়নি। ২৬ নভেম্বর (শুক্রবার) অনুষ্ঠিত বাউবি প্রথম বর্ষের পৌরনীতি পরীক্ষায় ছোট বোন রুনা আক্তারের নবজাতককে কোলে নিয়ে কেন্দ্রে যান বড় বোন রিনা আক্তার। পরীক্ষা চলাকালে অসদুপায় অবলম্বন করে ছোট বোনের পরিবর্তে বড় বোন পাশে বসে সহযোগিতা করে আসছিল। বিষয়টি দায়িত্বরত কর্মকর্তার নজরে আসলে তাকে হল থেকে বের করে দেন।

ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও হল সচিব খুরশিদুল জান্নাত বলেন, প্রক্সি দিতে নয়, ছোট বোনের নবজাতক কোলে নিয়ে কেন্দ্রে এসেছিল, তবে হলে প্রবেশ করতে পারেনি।

এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষক বলেন, অন্য একজন শিক্ষার্থী নকল করার দায়ে বের করে দেয়া হয়েছে, রুনা আক্তারকে নয়।

এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায় বলেন, এ ঘটনা কেউ তাকে অবগত করেনি। খোঁজখবর নিয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!