ফেসবুক

শুনতে কী পাও প্রমা দি?

আকতার নুর
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

সারা দুনিয়ায় সে খবর রটে গিয়েছিলো। বাংলা নামের এক দেশ আছে সম্পদের ভান্ডার। অন্নের অভাব নেই, বস্ত্রের অভাব নেই, নেই প্রমোদেরও কোন অভাব। সুখ-সাহিত্যে ভরপুর সেই দেশে শায়েস্তা খাঁ নামের এক রাজা আছে, সে রাজার দেশে টাকায় আট মন চাল পাওয়া যায়!
তারপর আরব মরুর বনিকের দল, দস্যুর দল, পর্তুগিজ-ওলন্দাজ, রুশ, ফরাসিরা অন্নের খোঁজে উত্তাল সমুদ্র পাড়ি দিয়ে। দুর্মম গিরি-কান্তার আর মরু দুস্তর পাড়ি দিয়ে তারা লাখে-লাখে, ঝাঁকে-ঝাঁকে আসতে লাগলো এদেশে। শেষান্তে সব’চে বেশী এলো ব্রিটিশ বেনীয়ারা। সহজ-সরল জাতি তাদের সাদর-সম্ভাষণ জানাতে দ্বিধা করেনি। ধীরে ধীরে তারা সারল্যের সবটুকু পূঁজি বিনিয়োগ করে ক্রমশ সবকিছু দখলে নিয়ে গ্রাস করলো এই মহাদেশ।

তারপর পলাশীর প্রান্তরে কী হলো সেই ইতিহাস সকলের জানা।

প্রমা_ইসরাত? প্রমাকে চিনতে পারেননি? আফসোস, আমরা প্রমাদের চিনতে ভুল করি!

প্রমা ইসরাতরা সেই নাক সিটকানো বুভুক্ষু ব্রিটিশ কলোনীর দাসত্বের বীর্য। যারা ককসবাজারের সম্পদের লোভে পাড়ি জমিয়েছে এই অঞ্চলে। যারা ককসবাজারের উর্বর জমি, লবণ, মৎস সম্পদ। স্থল বন্দর, পাহাড়ি ইকোনোমিক্যাল জোন, এবং মনোলোভা পর্যটনকেন্দ্রকে ঘিরে গড়ে ওঠা পর্যটনশিল্পের সম্পদের প্রাচুর্যতা সম্পর্কে সব জানে।

তারা জানে এই অঞ্চলের মানুষ কতটা সমৃদ্ধ তবুও এখন কতটা বেকায়দায় আছে রোহীঙ্গার বোঝা নিয়ে। এই অঞ্চলের সেই দু:সময়কে পূঁজি করে প্রমারা এসেছে মধু লুটে নিতে। তবুও সমুদ্র পাড়ের সমুদ্র-হৃদয়ের মানুষ তাদের সবকিছু মেনে নিয়েছে। সাদরে অভ্যর্থনা জানিয়েছে নিজেদের দুর্দশা আর দৈন্যতাকে। তবুও প্রমারা নিজের অন্ধকার ঢেকে উপহাসে মেতেছে এই অঞ্চলের মানুষকে নিয়ে। ঠিক বিট্রিশ বেনিয়াদের মত!

প্রমারা ভুলে গেছে সেই কাল গিয়েছে কবেই। আমলটা এখন সেকেলে নয়। মানুষও সেকেলে নয়। প্রমা দি, প্রমাণ পেয়েছেন তো?

সমৃদ্র-হৃদয়ের গর্জনে এতটা ভীত কেনো? প্রমা দি, সমুদ্রের এই গর্জন শুনতে কী পাও?

পুনশ্চ: এই প্রমা ইশরাত হলেন বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকে কর্মরত একজন কর্মকর্তা, যিনি ব্র্যাকের রোহিঙ্গা প্রকল্পে কাজ করেন। এই রমনী তার ফেসবুকে কক্সবাজারের স্থানীয় অধিবাসী, বিশেষ করে চাকুরি প্রত্যাশী তরুণ যুবাদের কটাক্ষ করেছেন।

বাংলাদেশের ‘দুবাই’ কক্সবাজারে চাকুরি করতে এসে, এই অঞ্চলের আলো বাতাস, অন্ন খেয়ে সেই কক্সবাজারবাসিদেরকেই কটাক্ষ করছেন! এতে কক্সবাজারের সাধারণ মানুষ ক্ষুব্ধ হয়েছেন। সেই ক্ষুব্ধ মানুষদেরই একজন আকতার নুর, যিনি তার ফেসবুকে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। সেই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া কক্সবাজার ভিশন ডটকম পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!