‘জাস্টিন ট্রুডো ইসলাম গ্রহণ করেছেন’ সংবাদে সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া!

‘জাস্টিন ট্রুডো ইসলাম গ্রহণ করেছেন’ সংবাদে সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া!

ইন্টারনেটে বিদ্রূপাত্মক বিষয় বস্তু প্রকাশকারী কিছু ওয়েব সাইট থেকে একটি পুরনো গুজব ছড়িয়ে পড়েছে যা দাবী করছে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো খ্রিষ্টান ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন কিন্তু একই সাথে অনেকের দাবী এই সংবাদটি পুরোপুরি ভুয়া।

‘কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো তার খ্রিষ্টান ধর্ম বিশ্বাস পরিত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন’ এই শিরোনামের একটি খবর আজ থেকে তিন বছর পূর্বে ‘Vatican Enquirer’ নামের একটি ওয়েব সাইটের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

ওয়েব সাইটটির ভাষ্য মতে ‘সিরিয়ার অভিবাসীদের সাথে সাক্ষাত করার সময় তিনি তাদের নিকট থেকে ইসলাম ধর্ম এবং তাদের মুসলিম বিশ্বাসের অনেক কিছু জানতে পেরে’ ইসলাম ধর্ম গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেন।

একই সাথে ওয়েব সাইটটি এর সপক্ষে জাস্টিন ট্রুডোর কিছু আলোকচিত্র প্রকাশ করেছিল যেখানে তাকে ‘তার নতুন ধর্ম বিশ্বাস গ্রহণ করতে পেরে খুব উচ্ছ্বাসিত’ দেখা যায়।

যদিও ‘Vatican Enquirer’ নামক ওয়েব সাইটটি ‘TheGlobalSun.com’ আরেকটি ওয়েব সাইটের রেফারেন্স দিয়েছিল কিন্তু বর্তমানে ‘TheGlobalSun.com’ ওয়েব সাইটটিতে আর প্রবেশ করা যাচ্ছে না।

‘TheGlobalSun.com’ ছাড়াও ‘WayBack Machine’ নামের বিদ্রূপাত্মক আরেকটি ওয়েব সাইটে শিরোনাম করা হয় যে, ‘জাস্টিন ট্রুডো ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছেন।’ আর ওই পোষ্টটি করা হয়েছিল ২০১৬ সালের জুলাই মাসের ৪ তারিখে যেখানে দাবী করা হয়েছিল যে, জাস্টিন ট্রুডোর ইসলাম গ্রহণের সিদ্ধান্তে তার স্ত্রী এবং সন্তানেরা সমর্থন করেছেন।

‘Vatican Enquirer’ নামের ওয়েব সাইটে জাস্টিন ট্রুডোর ইসলাম গ্রহণ সম্পর্কিত যে আলোকচিত্র প্রকাশ করা হয় তাতে দেখা যায় যে, একটি মুসলিম প্রার্থনা-গারে ট্রুডো অন্য মুসলিমদের সাথে প্রার্থনা করছেন এবং তাদের সাথে খাবার খাচ্ছেন।

ট্রুডোর প্রকাশিত এই আলোকচিত্র সমূহ ২০১৫ সালে অক্টোবর মাসের ২১ তারিখে ‘Islamic Foundation of Toronto’ কর্তৃক প্রকাশিত আলোকচিত্রের সাথে যথেষ্ট মিল রয়েছে।

ইমাম শাইখ ইউসুফ বাদাদ স্থানীয় CTVNews.ca কে এ কথা নিশ্চিত করেছেন যে, ট্রুডো ইসলাম গ্রহণ করেছেন এমন দাবীর ভিত্তিতে যে দুটো আলোকচিত্র প্রকাশিত হয়েছে সেগুলো মূলত ২০১৫ সালের পবিত্র রমজান মাসে ধারণ করা যখন তিনি সদ্য প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন।

ইউসুফ বাদাত বলেন, ‘Islamic Foundation of Toronto’ তাদের একটি অনুষ্ঠানে ট্রুডো কে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল যেখানে তিনি আমন্ত্রিতদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন এবং তাদের সাথে খাবার গ্রহণ করেন।

আর সম্প্রতি জাস্টিন ট্রুডোর ইসলাম গ্রহণ সম্পর্কিত এসব খবর প্রকাশিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থনকারী সামাজিক মাধ্যমের কিছু একাউন্ট কর্তৃক। গত সপ্তাহ জুড়ে এধরনের একটি পোষ্ট ফেইসবুক এবং টুইটারের অন্তত ৭১ টি ভিন্ন ভিন্ন একাউন্ট থেকে শেয়ার করা হয়েছে।

আর এসব একাউন্ট থেকে প্রকাশিত এই সংবাদটি ৯,২০০ বারেরও বেশী বার ফেইসবুকের প্রধান ফিডে চলে আসে।

ফেইসবুকে শেয়ার হওয়া এসব খবরের মন্তব্য কলামে অনেকে জাস্টিন ট্রুডোর ইসলাম গ্রহণের বিষয়টিকে বিশ্বাস করেন বলে জানিয়েছেন। একজন মন্তব্যকারী লিখেন, ‘যখন তারা কানাডা দখলে সফল হয় তখন তারা ট্রুডো কে অতি দ্রুতই আয়ত্ত করে নেয়।’

আরেকজন লিখেন, ‘ইসলাম কর্তৃক আমেরিকা দখল করার পরিকল্পনা এখন আমাদের নিজেদের ঘরের দরজায় এসে পৌঁছিয়েছে। কানাডার প্রধানমন্ত্রী এই দখলের জন্য পথ তৈরী করে দিচ্ছেন। তিনি এখনকার শ্বেতাঙ্গ ওবামা।’

প্রসঙ্গত, ‘Vatican Enquirer’ ওয়েব সাইটিতে বলা হয়েছে, ‘তারা শুধুমাত্র বিদ্রূপাত্মক বিষয় বস্তু প্রকাশ করে। তাদের প্রকাশিত সকল কন্টেন্ট শুধুমাত্র বিনোদনের জন্য যার সাথে বাস্তবতার কোনো মিল নেই। সকল বিষয় বস্তু একান্ত কাল্পনিক এবং বাস্তবতাকে প্রতিফলন করে না।’

CTVNews.ca এর পক্ষ থেকে ‘Vatican Enquirer’ এর প্রকাশক রিকো টোরেসের নিকট জাস্টিন ট্রুডোর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘জনগণ তাই বিশ্বাস করতে চায় যা তারা সত্য হিসেবে দেখতে চায়।’

কিছু বিদ্রূপাত্মক বিষয় বস্তু যা বিশ্বের জনগণকে বিভ্রান্ত করছে তা কেন প্রকাশ করা হয়েছে? এম প্রশ্নের জবাবে টোরেস বলেন, ‘আমি মনে করি বিশ্বের এমন ধরণে বিষয় বস্তু প্রয়োজন যা তাদের কে হাসাতে পারে, বিনোদন দিতে পারে এবং ভয়ঙ্কর বিষয় বস্তু থেকে দূরে রাখতে পারে।’

CTVNews.ca একই সাথে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর দপ্তরের সাথে যোগাযোগ করে। এক বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের মুখপাত্র বলেন, ‘এধরণের খবর একান্তই ভুয়া।’

২০১৩ সালে কানাডার লিবারেল পার্টির নেতা হওয়ার পর ট্রুডো প্রায়শ বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান যেমন পবিত্র রমজানের ইফতার, সেইন্ট-জিয়ান-ব্যাপটিস্টে ডে, দিওয়ালী ইত্যাদি তে যোগ দান করেন।

সূত্র: সিটিভিনিউজ ডট সিএ।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!