প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা, ব্যর্থ হয়ে হামলা

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা, ব্যর্থ হয়ে হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, মহেশখালী
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের অন্যতম দ্বীপ উপজেলা ও জেলায় সন্ত্রাসের জনপদ হিসেবে কুখ্যাতি পাওয়া মহেশখালীতে এবার প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। ওই সময় হামলার ঘটনাও ঘটে। এতে ওই তরুণীসহ অন্তত দুইজন আহত হন।

হামলায় আহত ও ভূক্তভোগী ওই তরুণী হলেন উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের মেহেরিয়াপাড়ার উত্তর পাশে সাহেব মিয়া পাড়ার নুরুল আলমের মেয়ে।

আহত তরুণী সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের আগের বসতবাড়ি ছিরে বড় মহেশখালীর কুলালপাড়ায়। ওখান থেকে বছরখানেক আগে আমার বাবা নুরুল আলম সাহেব মিয়াপাড়ায় নতুন বসতবাড়ি তৈরি করে শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করে আসছিলাম। কিন্তু কিছুদিন আগে জাগিরাঘোনা এলাকার আলতাজ মিয়ার ছেলে আব্দুর রহিম আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়।

ওই তরুণীর মতে, সেই প্রস্তাব তিনি গ্রহণ করেননি। তারপর থেকেই ক্ষুব্ধ আব্দুর রহিম সুযোগ খুঁজতে থাকে। অবশেষে ২৪ এপ্রিল বিকাল ৩টার দিকে তাকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় আব্দুর রহিম।

সেই তরুণী বলেন, ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে ছুরি দিয়ে আহত করে। ওই সময় আমার চিৎকারে পাশের ঘর থেকে ভাইয়ের বউ (ভাবী) আয়েশা আক্তার এসে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। বখাটে আবদুর রহিমের সহযোগী নয়ন হাতুড়ি দিয়ে ভাবীকে আঘাত করে এবং মাথার চুল টেনেহিচঁড়ে ছিড়ে ফেলে।

তার মতে, বিলের মাঝে বসতবাড়ি হওয়ার সুযোগ নিয়ে উপর্যোপরি আঘাত করে পালিয়ে গেছে হামলা ও ধর্ষণের চেষ্টাকারী আবদুর রহিম ও তার সহযোগীরা।

স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় তরুণী ও তার আহত ভাবীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে আহতদের চিকিৎসা দেয়া হয়।

আহত তরুণীর পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, ঘটনার বিষয়ে মহেশখালী থানাকে অবহিত করা হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ