মায়ানমার ওপর চাপ সৃষ্টির আহ্বান নরওয়ের পররাষ্ট্রমমন্ত্রীর

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান ও রোহিঙ্গাদের ওপর মায়ানমারের সশস্ত্র বাহিনীর নির্যাতন বন্ধে মায়ানমার সরকারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টির আহ্বান জানিয়েছেন, বাংলাদেশে সফররত নরওয়ের পররাষ্ট্রমমন্ত্রী বোরজ বেন্দে।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে যুব নেতৃত্বের সঙ্গে আয়োজিত এক সংলাপে তিনি এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের সঙ্গে অগ্রহণযোগ্য আচরণ ও নির্যাতন বন্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিৎ মায়ানমার সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করা।

তিনি আরো বলেন, রাখাইন প্রদেশের অবস্থা নিয়ন্ত্রণ ও রোহিঙ্গাদের ওপর অমানবিক নির্যাতন বন্ধে অং সান সু চির আরো বেশি কিছু করা উচিৎ ছিল। তবে মায়ানমারের রাজনীতি অনেক জটিল। সে দেশের সামরিক বাহিনী এখনো ২৫ শতাংশ সংসদ নিয়ন্ত্রণ করে। সেদেশে এখনো পুরাপুরি গণতন্ত্র আসেনি। সেখানে অংসান সু চির ক্ষমতার সীমাবদ্ধতা রয়েছে।

বোরজ বেন্দে বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নয় একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে সু চি যখন নোবেল পেয়েছিলেন তখন আমি খুশি হয়েছিলাম। আসলে নোবেল পুরস্কার একটি স্বাধীন ও নিরপেক্ষ কমিটির মাধ্যমে দেয়া হয়। এখানে নরওয়ে সরকারের কোনো ভূমিকা নেই।

মানবিক দিক বিবেচনা করে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশের প্রশংসা করে বোরজ বেন্দে বলেন, বাংলাদেশ যেসব রোহিঙ্গা সীমান্ত অতিক্রম করে এসেছে তাদের গ্রহণ করেছে। এ জন্য বাংলাদেশ সরকার প্রশংসার দাবি রাখে। এ পর্যন্ত মিয়ানমারে সশস্ত্র বাহিনীর হামলার কারণে শতাধিক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন, হাজার হাজার রোহিঙ্গা গৃহহারা হয়েছে। প্রায় ৭০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছেন।

প্রসঙ্গত, ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাতে সোমবার সকালে দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ঢাকায় পৌঁছেছেন নরওয়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বোরগ ব্রেন্ডে। সফর শেষে ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ঢাকা ত্যাগ করবেন তিনি।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একুশে ফেব্রুয়ারিকে ছড়িয়ে দেয়ার অংশ হিসেবে নরওয়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে এবার আমন্ত্রণ জানিয়েছে বাংলাদেশ সরকার।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!