সংস্কারপন্থীরা আসছেন ভিন্ন প্ল‌্যাটফর্মে, তাদের ঠেকাতে ব‌্যস্ত জামায়াত

জামায়াতকে ২৫ আসনে ছাড় দিল বিএনপি, কক্সবাজারে হামিদ আযাদ

পদত্যাগী ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাকসহ দলের সংস্কারপন্থীদের নিয়ে জামায়াতে ইসলামীতে বেশ অস্থিরতা শুরু হয়েছে। তারা কী করবেন তা নিয়ে জাতীয় রাজনীতিতে অল্পবিস্তর আলোচনাও চলছে। এসব আলোচনার সূত্র ধরে জানা গেছে, ভিন্ন রাজনৈতিক প্ল্যাটফর্মে নতুনভাবে মাঠে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন জামায়াতের সংস্কারপন্থী নেতারা।

জামায়াত নেতারা বলছেন, সংস্কারপন্থীরা আপাতত কোনো রাজনৈতিক দল না করে প্লাটফর্ম গঠনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ২৭ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে এ প্লাটফর্মের ঘোষণা দেয়া হতে পারে। এ জন্য জামায়াতে ইসলামীর আদর্শের বাইরে গিয়ে যারা নতুনভাবে চিন্তা করছেন, সে রকম বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগও করা হচ্ছে। ঢাকায় এসবের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জামায়াত থেকে বহিষ্কৃত মজিবুর রহমান মঞ্জু। ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সংস্কারপন্থী হিসেবে পরিচিত জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা মজিবুর রহমান মঞ্জুকে বহিষ্কার করে জামায়াত। খবর প্রাইম নিউজের।

সূত্র মতে, লন্ডনে অবস্থারত ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাক তার আইনি ব্যবসার চল্লিশ বছরপূর্তিতে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন। স্থানীয় সময় ১২ এপ্রিল সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল। জামায়াতের এক কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, লন্ডনে জামায়াতের সংগঠন সবচেয়ে শক্তিশালী। এই অনুষ্ঠানে তাদের কোনো নেতাকর্মী যেন অংশ না নেন, সে জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

শুধু তা-ই নয়, ঢাকায় সংস্কারপন্থীদের সঙ্গে কারা যোগাযোগ রাখছেন, তাদের নজরদারিতে রাখা হচ্ছে। সন্দেহের মাত্রা অনুযায়ী কারও কারও সঙ্গে কথাও বলছেন।

জামায়াতের বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, জামায়াতের নাম পরিবর্তন, ২০-দলীয় জোট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার নীতিগত অবস্থান থেকেও তারা আপাতত সরে এসেছেন। তারা এসব বাদ দিয়ে সংস্কারপন্থীদের ঠেকাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

জামায়াতে ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, দলের অধিকাংশ নেতা মনে করেন, বিদ্যমান পরিস্থিতিতে ২০-দলীয় জোট ছেড়ে গেলে সংষ্কারপন্থীরা বিকল্প প্লাটফর্ম নিয়ে বিএনপিতে যুক্ত হবেন। কারণ এর আগে ২০-দলীয় জোট থেকে যারাই বেরিয়ে গেছেন, তাদের একাংশ বিএনপি জোটের সঙ্গে থেকে গেছেন। এ কারণে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ২০-দলীয় জোটের বৈঠকে অংশ নিয়েছেন তারা।

সূত্র মতে, ওই বৈঠকে অংশ নেয়া জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য আবদুল হালিম জোট নেতাদের উদ্দেশে বলেন, আমাদের (জামায়াতে ইসলামী) নিয়ে যে সব খবর প্রকাশ হচ্ছে, তা পত্রিকার বক্তব্য, আমাদের নয়। জামায়াত ২০-দলীয় জোটের সঙ্গে আছে, থাকবে।

এই বৈঠকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, ২০-দলীয় জোট আছে এবং থাকবে।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!