ফেসবুকের পাতা থেকে

সাদা এপ্রোন, সাদা কাপড়, সাদা পতাকা!

সাদা এপ্রোন, সাদা কাপড়, সাদা পতাকা!

আকতার নুর, একজন অনলাইন অ‌্যাক্টিভিষ্ট। তিনি খানিক রাজনীতির সাথেও যুক্ত। তিনি অনলাইনে লিখতে ভালোবাসেন। ফেসবুকের পৃষ্টাজুড়ে তার প্রতিবাদ! ফেসবুকে তার নিজেকে নিয়ে লেখা মন্তব‌্য হলো, ‘ভারপ্রাপ্ত কবি! আমায় ডেকোনা, ফেরানো যাবেনা।’

ফেসবুকে লেখা আকতার নুরের তেমনই একটি প্রতিবাদমুলক লেখা কক্সবাজার ভিশন ডটকম পাঠকদের জন‌্য তুলে ধরা হলো। ৮ এপ্রিল সোমবার বেলা পৌণে একটার দিকে তিনি লেখাটি পোষ্ট দিয়েছেন।

আকতার নুর
অনলাইন অ‌্যাক্টিভিষ্ট
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

১.নাম্বারে প্রশ্ন সমূহ:
ডাক্তারদের এপ্রোন কেনো সাদা? মৃত’র কাপড় কেনো সাদা? সীমান্তে সাদা পতাকাই বা কেনো ব্যবহার হয়? অধিকাংশই এই প্রশ্নের উত্তর জানার কথা। এইসব উত্তর আপনারা দিয়েন। আমার সমস্যা অন্য কোথাও।

২.নাম্বারে কিছু প্রশ্ন উত্তরসহ:
বলুন তো সরকারী মেডিকেল কলেজ চলে কার টাকায়? সরকারের! সরকার চলে কার টাকায়? আমজনতার! সেই মেডিকেলে প্রায় বিনা টাকায় পড়ে কারা? নব্য ডাক্তাররা (পড়ুন ইন্টার্ণ ডাক্তার!)। নব্য ডাক্তারদের এমবিবিএস শেষে হাতে কলমে ডাক্তারি করে কাদের গিণিপিগ বানিয়ে? সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্যে যাওয়া গরীব অসহায় আমজনতাকে! (গিণিপিগ, গবেষণার কাজে ব্যবহৃত পশু-প্রাণী)

এছাড়াও আরো কতকিছু, কত সুবিধা পায় তারা, সে সব না-হয় আলোচনার উর্ধ্বে রাখি।

৩.নাম্বার তাদের উদ্দেশ্যে:
কেবলই একটা পয়েন্টে আসি, যাদের কষ্টশ্রমের টাকায় পড়ালেখা করে ডাক্তার বাবু সাজেন, ভাব-লন সমাজের সব’চে এলিটের, সেই তাদেরকে কেনো অস্পৃষ্য, আপনাদের দাসের গোলাম ভাবেন? লজ্জা করে না আপনাদের? এতটুকুন হায়া-পর্দাও নেই চোখে? অতি: ডিউটির দোহায় চোদান সারাক্ষণ মোবাইল নিয়ে ব্যস্ত থাকা ডিউটিরত ইন্টার্ণ বেহায়ার দল! নির্লজ্জের দল! আপনাদের কী নিজের মনকে প্রশ্ন করে শরমিন্দা হওয়া উচিৎ না?

৪.একজন ভুক্তভোগীর ক্ষোভ:
বিশ্বাস করুন, সরকারী হাসপাতালে ইন্টার্ণশীপ করা অধিকাংশ নব্য ডাক্তারদের আচরণ স্রেফ কুকুর তুল্য, শুয়োর তুল্য। কোন কোন ক্ষেত্রে তারও অধম! আমি অনার্স-মাস্টার্স ডিগ্রীধারী সচেতন এক যুবক হয়েও তাদের সেই আচরণের প্রচণ্ড রকমের ভুক্তভোগী। এবার কিছু না-জানা শিক্ষাহীন, বড় কোন মামা, চাচা হীন আমজনতার কথা একটিবার চিন্তা করুন! কি শোচনীয় জুলুমের শিকার তারা!

পক্ষান্তরে প্রায় বিশ থেকে তিরিশ লক্ষ টাকা খরচ করে প্রাইভেট মেডিকেলে পড়া ডাক্তারদের আচরণ অত্যন্ত শোভনীয়, মার্জিত ও রূচিশীল!

নোট: ককসবাজার সদর হাসপাতালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইন্টার্ণ ডাক্তারদের তিনদিন ধরে কর্মবিরতি চলছে! সীমাহীন দুর্ভোগে হাজার হাজার অসহায় রোগী!

জ্ঞাতার্থে: আমার লিস্টে থাকা অনেক প্রিয় ইন্টার্ণ ডাক্তার ভাই-বোনদের নিকট ক্ষমা প্রার্থনা পূর্বক আমি স্পষ্ট বলছি, অধিকাংশই নিকৃষ্ট। তার মানে সবাই তেমন না! আপনার আচরণও যদি তেমনই হয়ে থাকে, তবে আপনার জন্য একরাশ সমবেদনা।

#হোক_প্রতিবাদ

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!