হয়তো চোখের জল ঝরছে মুর্দা’রও!

 

‘বাঁশের ভেলা’য় কেউ আনন্দ নিয়ে পানিতে ভাসে আবার কেউ বাধ্য হয়ে পানি পারাপার হন ভেলায়। তবে জীবন্ত মানুষ কতোটুকু কষ্ট পায় কিংবা আনন্দ পায় তা নিতান্তই বুঝা কঠিন। যদি সেই ভেলায় নিথরদেহ তার অজান্তেই পারাপার করতে হয়, তা শুধু ওই লাশই বুঝবে কতোটুকু কষ্ট তার!

এমন এক চোখে জল আসা পীড়াদায়ক দৃশ্য দেখতে হয়েছে কক্সবাজার শহরের কাছাকাছি উপজেলা রামুর মনিরঝিলের সোনাইছড়ি গ্রামে।

একটি সেতুর অভাব দীর্ঘদিনের। কতো মানুষ লাশ হয়ে ভেলায় করে নিয়ে যেতে হয়েছে কবরস্থানে। তবুও যেন চোখ খুলছে না কারও।

রামুর সোনাইছড়ি খালের একপাড়ে জনবসতি, খালের অন্য পাড়ে কবরস্থান। আর গ্রামের কোন মানুষ মারা গেলে মৃতদেহ কবরস্থানে দাফনের জন্য কিভাবে নিয়ে যেতে হয়েছে তা ওই গ্রামের মানুষকে চোখে না দেখলেই বুঝা যাবে না। এমন একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।

সেখানে অনেকেই ওই এলাকার দায়িত্বপ্রাপ্ত ও সরকারি দপ্তরকে দোষ দিয়ে দায়িত্ববোধ নিয়ে লিখছেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, উপজেলা পিআইও অফিসসহ যারা গ্রামীণ অবকাঠামো ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করে থাকেন নিঃসন্দেহে এখানে তাদের দায়িত্ববোধ রয়েছে। দিনের আলোর মতো সত্য হলেও তবুও যেন ঘুম ভাংছে না তাদের।

হয়তো এমন দৃশ্য দেখে জীবিত মানুষের কান্না আসবে আর সেই  মুর্দা’র চোখের জল ঝরছে না কি বিশ্বাস!!

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!